ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা শুক্রবার ১৯ আগস্ট ২০২২ ৪ ভাদ্র ১৪২৯
ই-পেপার শুক্রবার ১৯ আগস্ট ২০২২
http://www.shomoyeralo.com/ad/Amin Mohammad City (Online AD).jpg

জাবিতে ১৯ শিক্ষার্থীকে মারধরের ঘটনা ফাঁস হলো ২ দিন পর
জাবি প্রতিনিধি
প্রকাশ: শনিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০২১, ১২:৪০ পিএম আপডেট: ০৪.১২.২০২১ ১:২০ পিএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 2484

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) শহীদ রফিক-জব্বার হলের ৪৭ ব্যাচের (৩য় বর্ষের) শিক্ষার্থীদের গেস্টরুমে মারধর করে হল থেকে বের করে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে একই হলের ৪৬ ও ৪৫ ব্যাচের ছাত্রলীগ কর্মীদের বিরুদ্ধে। গেস্টরুমে মারধরের পর ৪৭ ব্যাচের ১৯ জন শিক্ষার্থীকে হল থেকে বের করে দেওয়া হয়। তারা এখনো হলে ফিরতে পারেননি বলে জানা গেছে।

শনিবার (৪ ডিসেম্বর) নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক ভুক্তভোগী জানান, গত বৃহস্পতিবার রাত দুইটায় গেস্টরুমে মারধর ও রুমে ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর সিনিয়রদের হুমকি, ধমকি ও চাপে ৪৭ ব্যাচের কেউ মুখ খুলতে সাহস পায়নি।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, হলে ক্রিকেট খেলাকে কেন্দ্র করে ৪৫ ও ৪৭ ব্যাচের শিক্ষার্থীদের মধ্যে তর্ক-বিতর্ক হয়। রাতে ৪৬ ব্যাচের ছাত্রলীগ কর্মীরা ৪৭ ব্যাচকে গেস্টরুমে ডাকে। ৪৫ ব্যাচের সঙ্গে তর্কে জড়ানোর জন্য ৪৬ ব্যাচের ছাত্রলীগ কর্মীরা গেস্টরুমে ঢুকেই ৪৭ ব্যাচের শিক্ষার্থীদের কলার ধরে কিল ঘুষি ও লাথি মারতে থাকে। ৪৬ ব্যাচের আইন ও বিচার বিভাগের তুরাগ, ইতিহাসের কেফায়েত, সরকার ও রাজনীতির তানভির সিদ্দিকি, ফিজিক্সের হাবিব, ফিন্যান্সের রবিনের বিরুদ্ধে ৪৭ ব্যাচের শিক্ষার্থীদের শারীরিক লাঞ্ছিত করার নেতৃত্ব দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

নিপীড়নের শিকার হয়ে ৪৭ ব্যাচের শিক্ষার্থীরা হল থেকে বের হওয়ার চেষ্টা করলে ৪৫ ব্যাচের ছাত্রলীগ কর্মীরা দা, রামদা, স্ট্যাম্প নিয়ে এসে তাদের ধাওয়া করে। এতে ৪৭ ব্যাচের হাসান, আকাশ, রাফি, অলকসহ বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থী আহত হয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসা কেন্দ্রে চিকিৎসা নেয়। হাসানের অবস্থা খারাপ হলে তাকে এনাম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে অভিযুক্ত তুরাগ বিষয়টি অস্বীকার করে এমন কোনো ঘটনা ঘটেনি বলে জানায়। আহত একাধিক শিক্ষার্থীর চিকিৎসা সংক্রান্ত কাগজপত্র সময়ের আলোর হাতে এসেছে। আক্রান্ত ১৯ শিক্ষার্থীও বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত।

এদিকে ৪৭ ব্যাচের বিরুদ্ধে রুম ভাঙচুরের লিখিত অভিযোগ দিয়েছে ৪৫ ব্যাচের মো. সোহেল রানা ও আহাসান আমিন ফাহিম। ৪৭ ব্যাচের শিক্ষার্থীরা এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে হলের প্রভোস্ট সোহেল আহমেদ সময়ের আলোকে জানান, ঘটনার দিন রাতে আমি হলে গিয়েছি। কয়েকজন শিক্ষার্থী আহত হয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসাকেন্দ্রে চিকিৎসা নিয়েছে ও একজনকে এনামে নেওয়া হয়ছিলো বলে জানতে পেরেছি। তবে ৪৭ ব্যাচের কেউ আমাকে কিছু জানায়নি। বিষয়টি মিটমাটের জন্য হলে ওদের কোনো সিনিয়রের সঙ্গেও যোগাযোগ করেনি। ৪৫ ব্যাচের দুইজন শিক্ষার্থীর পক্ষ থেকে ৪৭ ব্যাচের পাঁচ জন শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে লিখেছি অভিযোগ পেয়েছি। তদন্তের মাধ্যমে প্রকৃত দোষীদের বিরুদ্ধে শাস্তি নিশ্চিত করব। 

/জেডও/


আরও সংবাদ   বিষয়:  ছাত্রলীগ   জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের   জাবি  




http://www.shomoyeralo.com/ad/Google-News.jpg

সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড
এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]