ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা মঙ্গলবার ৬ ডিসেম্বর ২০২২ ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
ই-পেপার মঙ্গলবার ৬ ডিসেম্বর ২০২২
https://www.shomoyeralo.com/ad/Amin Mohammad City (Online AD).jpg

আজ মহালয়া: এবার পূজামণ্ডপ ৩২ হাজার
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশ: রোববার, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ৩:১০ এএম আপডেট: ২৫.০৯.২০২২ ৩:১৭ এএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 121

আজ শুরু হচ্ছে দেবীপক্ষ। মহালয়া আজ। চণ্ডীপাঠ, মহালয়ার ঘট স্থাপন ও বিশেষ পূজার মধ্য দিয়ে শুরু হবে। মহালয়া মানেই দুর্গাপূজার দিন গোনা শুরু। মহালয়ার ভোরবেলা থেকেই শুরু হবে পূর্বপুরুষদের উদ্দেশে তর্পণ করা। সনাতন ধর্মে বলা হয়, পিতৃপক্ষে প্রয়াত আত্মারা স্বর্গ থেকে মর্ত্যলোকে আসে। মৃত আত্মীয়-পরিজন ও পূর্বপুরুষদের আত্মার মঙ্গল কামনা করেন অনেকে। পূর্বপুরুষদের উদ্দেশে জল-তিল-অন্ন উৎসর্গ করে তর্পণ করা হয়।

সনাতন ধর্মে বলা হয়, দেবীপক্ষকে বলা হয় সবচেয়ে শুভ দিন। এ সময় সব ধরনের শুভকাজ সম্পন্ন করা যায়। এই দিনে দেব-দেবীকুল দুর্গাপূজার জন্য নিজেদের জাগ্রত করেন। মহালয়ার দিন ভোরে মন্দিরে মন্দিরে শঙ্খের ধ্বনি ও চণ্ডীপাঠের মধ্য দিয়ে দেবীকে আবাহন জানানো হয়।

বিশুদ্ধ পঞ্জিকা অনুযায়ী, ১ অক্টোবর বোধনের মধ্য দিয়ে শুরু হবে দুর্গাপূজার আনুষ্ঠানিকতা। ১ অক্টোবর ষষ্ঠী, ২ অক্টোবর সপ্তমী, ৩ অক্টোবর অষ্টমী, ৪ অক্টোবর নবমী এবং ৫ অক্টোবর দশমী।

এদিকে প্রতিমার কাঠামোতে মাটির কাজ শেষ হয়েছে অনেক আগেই। রঙের কাজও হয়েছে অনেকটা। হাত, গলা, কপালের ভাঁজগুলো ফুটিয়ে তোলার মতো সূক্ষ্ম কাজগুলো এখন করছেন প্রতিমা কারিগররা। তুলির আঁচড়ে চোখ ফুটিয়ে তোলার কাজটিও করছেন খুব সতর্কভাবে। দুর্গা, সরস্বতী, লক্ষ্মী, কার্তিক, গণেশের পাশাপাশি অসুরের দিকেও সমান গুরুত্ব কারিগরদের। শুধু কি তাই? দেব-দেবী কিংবা অসুরের বাহন সিংহ, হাঁস, পেঁচা, ময়ূর, ইঁদুর, সাপ, মহিষও সমান গুরুত্বপূর্ণ। তাই রং-তুলি হাতে কারিগররা এ কাজগুলো করছেন নিবিষ্ট মনে।

শনিবার সকালে ঢাকেশ^রী জাতীয় মন্দির মিলনায়তনে এবারের দুর্গোৎসব নিয়ে বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় করেন। এ সময় নেতারা জানিয়েছেন, সারা দেশে এবার ৩২ হাজার ১৬৮টি মণ্ডপে পূজা উদযাপন হবে। গত বছরের ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে এবার নিরাপত্তা নিশ্চিতে সতর্কতা অবলম্বন করা হচ্ছে বলেও জানিয়েছেন পরিষদের নেতারা। বাঙালি হিন্দুদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব দুর্গাপূজার ঘণ্টা বাজবে আজ ২৫ সেপ্টেম্বর মহালয়ার মধ্য দিয়ে। ১ অক্টোবর শুরু হবে মূল পূজা যা ৫ অক্টোবর প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে শেষ হবে।

বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি জে এল ভৌমিক বলেন, ‘৩২ হাজার ১৬৮টি মন্দিরের সুরক্ষা দেওয়া খুব কঠিন। তাই আমরা এ বছর প্রত্যেক মন্দিরে স্বেচ্ছাসেবক নিয়োগ করছি, যারা রাতেও পাহারা দেবে।’ 

পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক চন্দ্রনাথ পোদ্দার বলেন, ‘প্রতি বছর ধারাবাহিকভাবে পুজোর সংখ্যা বাড়ছে। পূজার সংখ্যা বৃদ্ধি নিশ্চয়ই আনন্দদায়ক। তবে পুজোর সংখ্যা বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে পূজাকেন্দ্রিক নিরাপত্তার বিষয়টিও সবাইকে বিবেচনায় নেওয়া দরকার।’ 

/এসকে


আরও সংবাদ   বিষয়:  পূজামণ্ডপ   মহালয়া  




https://www.shomoyeralo.com/ad/Google-News.jpg

সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড
এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : shomoyeralo@gmail.com