ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা বৃহস্পতিবার ৮ ডিসেম্বর ২০২২ ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
ই-পেপার বৃহস্পতিবার ৮ ডিসেম্বর ২০২২
https://www.shomoyeralo.com/ad/Amin Mohammad City (Online AD).jpg

ঢাবিতে ছাত্রদল নেতাদের ওপর ছাত্রলীগের হামলা
ফুল পড়ে রইলো রাস্তায়, সঙ্গে ছাত্রদল নেতারা
নিজস্ব প্রতিবেদক ও ঢাবি প্রতিনিধি
প্রকাশ: মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ৭:৫৫ পিএম আপডেট: ২৭.০৯.২০২২ ৮:১৯ পিএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 209

'নীলক্ষেত মোড় থেকে ফুলের তোড়া হাতে ঢোকার চেষ্টা করি আমরা। এরপর কী হয়েছে সেটা তো আপনারা দেখতেই পাচ্ছেন।'- কথাগুলো বলছিলেন ছাত্রদলের এক কর্মী। সরেজমিনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্যার এ এফ রহমান হলের সামনেও দেখা যায় একই চিত্র। মঙ্গলবার (২৭ সেপ্টেম্বর) বিএনপি'র ছাত্র সংগঠন ছাত্রদল ঢাবি ক্যাম্পাসে ফুল নিয়ে প্রবেশ করার চেষ্টা করলে তাদের ওপর হামলা চালায় এফ রহমান হল শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি সহ অন্যান্য নেতাকর্মীরা। এ সময় ছাত্রদলের ৩ জন কর্মী আহত হন।

মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে চারটার দিকে ছাত্রদলের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার নবগঠিত কমিটি উপাচার্য মো. আখতারুজ্জামানের সঙ্গে দেখা করতে নীলক্ষেতে অবস্থিত মুক্তি ও গণতন্ত্র তোরণ দিয়ে প্রবেশ করে। আগে থেকেই ঘোষণা দিয়ে ছাত্রদলকে প্রতিহত করতে অবস্থান নেয় ছাত্রলীগ। ছাত্রদল ক্যাম্পাসে প্রবেশের সঙ্গে সঙ্গেই ছাত্রদলের নেতা-কর্মীদের ওপর হামলা চালান ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য মো. আখতারুজ্জামানের সঙ্গে দেখা করার বিষয়টি নিশ্চিত হলে ঢাবি ক্যাম্পাসে পাল্টা কর্মসূচি ঘোষণা করে ছাত্রলীগ। তারা শিক্ষার্থীদের সমস্যা-সংকট সমাধানে উপাচার্যকে স্মারকলিপি প্রদান কর্মসূচি ঘোষণা করে। পাশাপাশি ছাত্রদলকে প্রতিহত করার ঘোষণাও দিয়েছিলেন ছাত্রলীগের বিশ্ববিদ্যালয় শাখার শীর্ষ নেতৃবৃন্দ। এরই অংশ হিসেবে দুপুর থেকে বিভিন্ন হল শাখা ছাত্রলীগের কর্মীরা ক্যাম্পাসের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ মোড়ে অবস্থান নেন। এ ছাড়াও উপাচার্যের বাসভবন ও সিনেট ভবনের সামনে অনেকটা অবরোধ করে রাখেন তারা। ছাত্রলীগ সূত্রে জানা যায়, মূলত ছাত্রদল যেন ক্যাম্পাসে প্রবেশ করতে না পারে সেজন্যই তাদের এ অবস্থান।

অবশ্য সংঘর্ষে না জড়াতে উপর থেকে নির্দেশ রয়েছে বলেও জানান একাধিক ছাত্রলীগ নেতা। কিন্তু শেষ পর্যন্ত মারামারির মাধ্যমে শেষ হয় এই কর্মসূচি। পূর্বঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী উপাচার্যের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে বিকেল ৪টা ২৮ মিনিটে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রদলের সভাপতি খোরশেদ আলম ও সাধারণ সম্পাদক আরিফুল ইসলামের নেতৃত্বে ক্যাম্পাসে প্রবেশ করেছিলেন সংগঠনটির ২০ থেকে ২৫ জন নেতা-কর্মী। এ সময় স্যার এ এফ রহমান হল শাখা ছাত্রলীগের এক কর্মী ছাত্রদলের মিছিলের সামনে দাঁড়িয়ে যান। এ সময় ছাত্রদলের নেতাদের সঙ্গে তার তর্কবিতর্ক শুরু হয় যা একপর্যায়ে ধাক্কাধাক্কিতে রূপ নেয়। এ সময় ছাত্রদলের উপাচার্যের জন্য আনা ফুলের তোড়া ভেঙে ফেলেন ছাত্রলীগের ওই কর্মী। এর সঙ্গে সঙ্গেই স্যার এ এফ রহমান হল শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি রিয়াজুল ইসলামের তার অনুসারীরা রড, লাঠি ও স্টাম্প নিয়ে এসে ছাত্রদলের নেতা-কর্মীদের পেটাতে শুরু করেন। ছাত্রলীগের আরেকটি অংশ ছাত্রদলের নেতা-কর্মীদের ধাওয়া দিলে তারা ছত্রভঙ্গ হয়ে সেখান থেকে সরে যায়।

হামলার বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক আরিফুল ইসলাম বলেন, আমরা ক্যাম্পাসে প্রবেশ করতে গেলে ছাত্রলীগ আমাদের ওপর ন্যক্কারজনক হামলা করেছে। হামলায় আমাদের বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন। আমি নিজেও ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আছি। আমরা এ ন্যক্কারজনক হামলার তীব্র প্রতিবাদ জানাই এবং হামলাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করছি।

এদিকে একাধিক ভিডিও ফুটেজ এবং ছবি থাকলেও হামলার বিষয়ে জানতে চাইলে স্যার এ এফ রহমান হল শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. রিয়াজুল ইসলাম সময়ের আলোকে বলেন, আমরা কারো উপর হামলা করিনি। শিক্ষার্থীদের সংকট সমাধানে ছাত্রলীগের কর্মসূচি ছিলো। তা শেষ করে আমরা হলে ফিরছিলাম। সেখানে ছাত্রদল একজন শিক্ষার্থীকে মারধর করায় সাধারণ শিক্ষার্থী হিসেবে তাকে ছাড়িয়ে আনতে গিয়েছি।

এ বিষয়ে নীলক্ষেত পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ জাফর সময়ের আলোকে বলেন, সংঘর্ষের খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে গিয়েছি। ছাত্রদল উপাচার্যের সঙ্গে দেখা করতে গেলে এফ রহমান হল ছাত্রলীগের সঙ্গে তাদের সংঘর্ষ হয়। কয়েকজন আহত হয়েছেন বলে শুনেছি। আমরা এ বিষয়ে কোনো অভিযোগ পাইনি। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. এ কে এম গোলাম রাব্বানীর সঙ্গে মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলেও তিনি সাড়া দেননি।

এদিকে ছাত্রদলের এই কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে সন্ধ্যা ৭টার পরও উত্তেজনা বিরাজমান ছিলো ঢাবি এলাকায়। বিশেষত রেজিস্ট্রার ভবন এবং ভিসি চত্বর এলাকায় অবস্থান নেয়া ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।


আরও সংবাদ   বিষয়:  ছাত্রদল   নীলক্ষেত   ছাত্রলীগ   ঢাবি   ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়   ঢাবি ক্যাম্পাস   এ এফ রহমান  




https://www.shomoyeralo.com/ad/Google-News.jpg

সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড
এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : shomoyeralo@gmail.com