ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা বৃহস্পতিবার ৮ ডিসেম্বর ২০২২ ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
ই-পেপার বৃহস্পতিবার ৮ ডিসেম্বর ২০২২
https://www.shomoyeralo.com/ad/Amin Mohammad City (Online AD).jpg

রংপুরে একদিনে দুই রায়: ৫ জনের আমৃত্যু কারাদণ্ড
রংপুর ব্যুরো
প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ২৪ নভেম্বর, ২০২২, ৫:১৭ পিএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 77

রংপুরে পৃথক দুই আদালতে একদিনে দুই রায় হয়েছে। আদালত-২ এ ৫ জনের আমৃত্যু কারাদণ্ডের আদেশ এবং আদালত-৩ এ ১ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড আদেশ দিয়েছে।

রংপুরে  নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালত -৩ এ বৃহস্পতিবার (২৪ নভেম্বর) সকালে ধর্ষণ মামলার আসামি মিঠুন শেখ ওরফে সবুজকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড ও ৫ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ১ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দেন বিচারক এম আলী আহমেদ।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, ২০২০ সালের ৭ ডিসেম্বর রাত পৌনে ১০টার দিকে আসামি মিঠুন শেখ তারাগঞ্জের সয়ার দামোদর পুর গ্রামের এক কিশোরীকে মোবাইল ফোনে ডেকে নিয়ে বাড়ির পাশে পুকুর পাড়ে নিয়ে ধর্ষণ করেন। মিঠুন শেখ বদরগঞ্জের গোপালপুর শেখের হাট আদর্শ পাড়ার মোজাহার শেখ ওরফে মোজাহারুলের ছেলে। এ ঘটনায় ওই যুবতীর পিতা বাদী হয়ে তারাগঞ্জ থানায় ১১ ডিসেম্বর মামলা দায়ের করেন। সাক্ষ্যপ্রমাণ শেষে বিচারক এই রায় দেন। বাদীপক্ষে ছিলেন পিপি মো. লাইজু।

এদিকে,  নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালত-২ এর বিচারক মো. রোকনুজ্জামান রংপুরের গঙ্গাচড়ায় এক কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের পর হত্যার দায়ে পাঁচ জনের আমৃত্যু কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন। এছাড়া প্রত্যেক আসামিকে এক লাখ টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন, গঙ্গাচড়া উপজেলার নরসিংহ মর্ণেয়া গ্রামের আবুজার রহমান (২৮), আলমগীর হোসেন (২৭),  নাজির হোসেন (৩২),  আব্দুল করিম (২৯) এবং আমিনুর রহমান (২৯)। এদের মধ্যে আলমগীর হোসেন পলাতক।

মামলা ও আদালত সূত্রে জানা যায়, মামলার প্রধান অভিযুক্ত আবুজার রহমানের সঙ্গে  ভুক্তভোগী শাহীনার (১৬) প্রেমের সম্পর্ক ছিল। একপর্যায়ে সে অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েন। এ অবস্থায় বিয়ের জন্য চাপ দিলে অস্বীকৃতি জানায় আবুজার। ঘটনার দিন ২০১৫ সালের ১৪ মে শাহীনার বাবা আইয়ুব আলী তার মাকে নিয়ে লালমনিরহাটে একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে যান। এসময় শাহীনা ও তার ১২ বছর বয়সী ভাগ্নি শান্তনা বাড়িতে ছিল। 

এ সুযোগে অভিযুক্ত আবুজার সহযোগীদের নিয়ে সন্ধ্যায় শাহীনার বাড়িতে গিয়ে তাকে ডেকে পাশের একটি ধইঞ্চা ক্ষেতে নিয়ে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের পর গলা কেটে হত্যা করেন। ওই দিন রাতে আইয়ুব আলী বাড়িতে ফিরে মেয়েকে না পেয়ে সম্ভাব্য সব জায়গায় খোঁজ নেন। পরদিন সকালে প্রতিবেশীদের মাধ্যমে খবর পেয়ে ধইঞ্চা ক্ষেত থেকে শাহীনার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। পরবর্তীকালে থানায় হত্যা মামলা করেন আইয়ুব আলী। প্রায় সাত বছর মামলাটি আদালতে বিচারাধীন থাকার পর বৃহস্পতিবার রায় ঘোষণা করা হয়। 

রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী জাহাঙ্গীর হোসেন তুহিন বলেন, সাক্ষ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে আদালত পাঁচ আসামির আমৃত্যু কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন। আমরা এ রায়ে সন্তুষ্ট।




https://www.shomoyeralo.com/ad/Google-News.jpg

সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড
এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : shomoyeralo@gmail.com