ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা শুক্রবার ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১৫ ফাল্গুন ১৪২৬
ই-পেপার শুক্রবার ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০

অগ্নিকান্ডে হতাহতদের জন্য দোয়া ও মাগফিরাত
আমিন ইকবাল
প্রকাশ: শুক্রবার, ২৯ মার্চ, ২০১৯, ৩:৩৬ পিএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 182

সম্প্রতি ঢাকার চকবাজারে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের শোক কাটিয়ে উঠতে না উঠতেই ফের আগুনে পুড়েছে বনানীর এফআর টাওয়ার। বহুতল এ ভবনে বৃহস্পতিবার আগুনে অসংখ্যা মানুষ হতাহত হয়েছেন। মাত্র ৩৬ দিনের ব্যবধানে রাজধানীতে ফের ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনায় আবারও স্তব্ধ পুরো জাতি। নিহতদের স্বজনদের আহাজারিতে ভারি হচ্ছে আকাশ-বাতাস। আহতদের স্বজনরা ছুটছেন হাসপাতালে পাসপাতালে। তবে আশার কথা হলো আগুনে পোড়া ব্যক্তিদের জন্য আল্লাহর পক্ষ থেকে সুসংবাদ রয়েছে। অগ্নিকান্ডে নিহতরা শহীদের মর্যাদা পাবেন। হাদিসে এসেছে হজরত জাবির ইবনু আতিক (রা.) বলেন, রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, ‘আল্লাহর রাস্তায় যুদ্ধ করে শহীদ হয়েছে এরূপ ব্যক্তি ছাড়াও সাত শ্রেণির লোক শহীদের মর্যাদা পাবে। ১. মহামারীতে মৃত ব্যক্তি, ২. পানিতে ডুবে মারা যাওয়া ব্যক্তি, ৩. শ্বাসকষ্ট রোগে মারা যাওয়া ব্যক্তি, ৪. পেটের রোগে মৃত ব্যক্তি, ৫. আগুনে পুড়ে মারা যাওয়া ব্যক্তি, ৬. কোনো কিছু চাপা পরে মারা যাওয়া ব্যক্তি এবং ৭. প্রসব কষ্টে মৃত নারী শহীদ।’ (আবু দাউদ : হাদিস ৩১১১; নাসাঈ : হাদিস ১৮৪৬)

শহীদের মর্যাদার বিষয়ে হজরত আব্দুল্লাহ ইবনে মাসউদ (রা.) বলেন, রাসুল (সা.) ইরশাদ করেছেন, ‘শহীদদের রূহ সবুজ রঙের পাখির পেটের ভেতরে বিশেষ সম্মানিত অবয়বে অনন্য জীবন লাভ করে। আর তাদের জন্য আরশে প্রদীপসমূহ লটকানো হয়। তারা জান্নাতে যেখানে খুশি বিচরণ করেন।’ (মুসলিম : ১৮৮৭)। অন্য হাদিসে হজরত আব্দুল্লাহ ইবনে আব্বাস (রা.) হতে বর্ণিত, রাসুল (সা.) ইরশাদ করেন, ‘শহীদগণ জান্নাতের দ্বারে নির্ঝরণীর ঝলকে সবুজ গম্বুজের মধ্যে অবস্থান করেন। তখন জান্নাত থেকে সকাল ও সন্ধ্যায় তাদের নিকট রিজিক আগমন করে।’ (মুসনাদে আহমাদ : ২৩৮৬)

আগুনে যারা আহত হয়েছেন, তাদেরকে ধৈর্য ধারণের কথা বলে ইসলাম। পবিত্র কোরআনে আল্লাহ তায়ালা বলেন, ‘অবশ্যই আমি তোমাদের পরীক্ষা করব কিছুটা ভয়, ক্ষুধা, মাল ও প্রাণের ক্ষতি ও ফল-ফসল বিনষ্টের মাধ্যমে। তবে সুসংবাদ দাও ধৈর্যশীলদের। যখন তারা বিপদে পড়ে, তখন বলে, নিশ্চয়ই আমরা সবাই আল্লাহর জন্য এবং আমরা সবাই তারই কাছে ফিরে যাব। তারা সেসব লোক, যাদের প্রতি আল্লাহর অফুরন্ত অনুগ্রহ ও রহমত রয়েছে এবং এসব লোকই হেদায়েতপ্রাপ্ত।’ (সুরা বাকারা : ১৫৫-১৫৭)

এ মুহূর্তে হতাহতদের স্বজন ও অন্যদের কর্তব্য হলো, ধৈর্য ধারণ ও আল্লাহর কাছে দোয়া করা। নিহতদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করা। আল্লাহ তায়ালা তাদের পরিবারকে এ দুর্ঘটনার ভার সইবার তৌফিক দিন।

  লেখক :  আলেম ও সাংবাদিক




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]