ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা শুক্রবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ ১০ আশ্বিন ১৪২৭
ই-পেপার শুক্রবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০

সাংবাদিকের কাছে ক্ষমা চাইলেন ছাত্রলীগ সভাপতি
ঢাবি প্রতিনিধি,
প্রকাশ: বুধবার, ১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১০:০৯ এএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 390


ছাত্রলীগের দুই সহ-সভাপতির সংঘর্ষের জের ধরে এক সাংবাদিককে তুলে নেয়ার ঘটনায় ছাত্রলীগ সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও তার অনুসারী সহ-সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় সাংবাদিকদের কাছে ক্ষমা চেয়েছেন এবং ভবিষ্যতে এরকম কর্মকাণ্ড হলে তার সুষ্ঠু বিচার করবেন বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় টিএসসিতে সাংবাদিক সমিতির কার্যালয়ে সাংবাদিকদের কাছে তিনি এ ক্ষমা প্রার্থনা করেন। এ সময় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির সভাপতি রায়হানুল ইসলাম আবির ও সাধারণ সম্পাদক মাহদী আল মুহতাসিম সহ সাংবাদিক সমিতির সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

ক্ষমা প্রার্থনা করে আল নাহিয়ান খান জয় বলেন, এটা দুঃখজনক । আমি আসলে বুঝতে পারিনি। আমার দুই বন্ধুর মধ্যে মারামারি হওয়ার কারণে আমরা খুব ব্যস্ত ছিলাম। এ কারণে হুট করে কি হয়েছে আমি বুঝতে পারিনি। এ ঘটনার জন্য আমি ক্ষমাপ্রার্থী । আগামীতে এ ধরনের কোনো ঘটনা ঘটবে না।

এ সময় শোভন বলেন, 'আমরা সবসময় সাংবাদিকদের সঙ্গে ভালো সম্পর্ক বজায় রাখতে চাই। কিন্তু অনাকাঙ্ক্ষিতভাবে কিছু ঘটনা ঘটে যায়। যেটার দায় আমরা এড়াতে পারি না।'

তিনি বলেন, 'ওই সাংবাদিক ভিডিও করার সময় কিছু উশৃঙ্খল কর্মী ছিল যারা একটা দুর্ঘটনা ঘটাতে পারত। পরে আমি তাৎক্ষণিক তাকে গাড়িতে উঠিয়ে নিলাম। পরে শুনলাম সে সাংবাদিক। কিন্তু ভিডিও ডিলিটের বিষয়ে আমি জানতাম না। বরঞ্চ তাকে সেভ করার জন্যই গাড়িতে তুলে নিয়েছিলাম। পরে অবশ্যই তাকে নিরাপদভাবে পৌঁছে দিই।'

ছাত্রলীগ সভাপতি বলেন, 'এবারের মতো আমি আপনাদের কাছে ক্ষমা চাচ্ছি। ভবিষ্যতে এমন ঘটনা ঘটলে আমি এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেব।'

সভাপতি আবির রায়হান বলেন, 'ছাত্রলীগ সভাপতির দুঃখ প্রকাশ করার পর আর কিছু বলার থাকে না। তবে এরকম আর কোনো ঘটনা ঘটলে আমরা শক্ত পদক্ষেপ নিতে বাধ্য হব।'




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, নির্বাহী সম্পাদক : শাহনেওয়াজ দুলাল, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে
প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ। নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]