ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা শুক্রবার ১৭ জুলাই ২০২০ ১ শ্রাবণ ১৪২৭
ই-পেপার শুক্রবার ১৭ জুলাই ২০২০

চবিতে ছাত্রলীগ কর্মীকে নিয়ে দু’পক্ষের পাল্টাপাল্টি অভিযোগ
চবি প্রতিনিধি
প্রকাশ: শুক্রবার, ২৯ নভেম্বর, ২০১৯, ৮:৪৬ পিএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 234

অনৈতিক কাজের অভিযোগ তুলে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) এক ছাত্রলীগ কর্মীকে হলছাড়া করেছে অন্যপক্ষ। অন্যদিকে অভিযুক্ত রফিকুল ইসলাম রুমমেটদের মধ্যে তর্কাতর্কি নিয়ে অন্যপক্ষ রাজনীতি করতে চাচ্ছে বলে পাল্টা অভিযোগ দেয়।

শুক্রবার বিকাল সাড়ে তিনটায় রফিকুলকে সোহরাওয়ার্দী হলের ১৫৪ নাম্বার কক্ষ থেকে বের করে দেয় বিজয়ের কর্মীরা।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, নিজকক্ষ থেকে বের করে রফিককে টিভি কক্ষে আটকে রাখা হয়। পরবর্তীতে বিকাল সাড়ে চারটায় হল প্রাধ্যক্ষ ও চবি প্রক্টর উভয় পক্ষের সাথে মিটিং করেন। এরপর দুপক্ষের মাঝে সমজোতা করে দেওয়া হয়। রফিকুল ইসলাম আরবী বিভাগের ২০১১-১২ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী। একই বিভাগের ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী মো. ইয়াসিনও সে কক্ষে থাকত। রফিক শাখা ছাত্রলীগের বিজয় পক্ষের রাজনীতি করলেও চুজ ফ্রেন্ডস উইথ কেয়ার (সিএফসি) থেকে মনোনীত হওয়া শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি রেজাউল হক রুবেলের অনুসারী বলে পরিচয় দেয়। অন্যদিকে ইয়াসিন শাখা ছাত্রলীগের বিজয় পক্ষের কর্মী বলে জানিয়েছে সে।

ইয়াসিন অভিযোগ দিয়ে বলেন, একই বিভাগের বড়ভাই বলে আমি তার কোন আচরণের বিপক্ষে কিছু বলতাম না।  কিন্তু তিনি আমাদের সাথে অনেকটা কাজের লোকের মত ব্যবহার করতেন। আমাদের মাধ্যমে নাস্তা আনানো, পা টেপা এমনকি অনৈতিক কাজের জন্য চাপ দিতেন। রাতে দেরি করে রুমে এসে লাইট জ্বালিয়ে ব্যায়াম করেন। যার কারণে আমাদের ঘুমেও সমস্যা হয়। এসব কাজের জন্য আপত্তি জানালে আমাকে রুম থেকে বের করে দেয়ার হুমকি দেন তিনি। 

এদিকে অভিযোগের ব্যাপারে রফিকুল ইসলাম বলেন, আমরা অনেকদিন ধরে একই রুমে আছি। কখনো এধরণের ঘটনা ঘটেনি। শুধুমাত্র আজকে সকালে নিজেদের মধ্যে কিছু বিষয় নিয়ে কথা কাটাকাটি হয়। এটার সুযোগ নিয়ে অন্যরা রাজনীতি করার চেষ্টা করছে। যেসমস্ত অভিযোগ দিচ্ছে তার কোনটাই সঠিক নয়। বিষয়টি নিয়ে হল প্রভোস্ট ও প্রক্টররা বসে সমাধান করে দেন। আমি বিজয় পক্ষের রাজনীতি করি, নতুন সভাপতিকেও মেইনটেইন করি। তারা যদি কোন লিখিত অভিযোগ দেয় আমিও এর বিপরীতে অভিযোগ জানাব।

বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি রেজাউল হক রুবেল বলেন, রফিকুল এখন আমার সাথে রাজনীতি করছে। এ বিষয়টা মেনে নিতে না পেরে এক পক্ষ পরিস্থিতি উত্তপ্ত করার চেষ্টা করছে।

বিজয় পক্ষের নেতা ও সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক মোহাম্মদ ইলিয়াস বলেন, রফিক এখন আমাদের সাথে রাজনীতি করেনা। জুনিয়ররা তার বিরুদ্ধে অভিযোগ দিলে প্রশাসনকে জানানোর জন্য পরামর্শ দিয়েছি।

এসব ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক মনিরুল হাসান জানান, আমরা উভয় পক্ষের সঙ্গে বসে প্রাথমিকভাবে সমাধান করে দেই। হল প্রাধ্যক্ষকে এব্যাপারে অভ্যন্তরীণ তদন্ত করতে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। অভিযুক্ত শিক্ষার্থীকে আপাতত ওই হলের বাইরে থাকার নির্দেশ দেয়া হয়।




এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]