ই-পেপার শনিবার ২৫ জানুয়ারি ২০২০ ১০ মাঘ ১৪২৬
ই-পেপার শনিবার ২৫ জানুয়ারি ২০২০

ভোটের হাওয়া ডিএসসিসির ২২ নং ওয়ার্ড
ভবিষ্যৎ কাউন্সিলর কে?
শাহনেওয়াজ
প্রকাশ: সোমবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১২:০০ এএম আপডেট: ০৯.১২.২০১৯ ১২:১৯ এএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 142

ঢাকার পশ্চিম শেষ প্রান্তের ওয়ার্ড হচ্ছে ২২নং। এক সময় হাজারীবাগ থেকে একেবারে নওয়াবগঞ্জ বাজার হয়ে এঁকেবেঁকে রাস্তাটি চলে গেছে চকবাজারে। পুরান ঢাকার ঘনবসতি হিসেবে এসব এলাকা বেশ সুপরিচিত। আর ২২নং নম্বর ওয়ার্ডটি এখন সবার কাছে গুরুত্বপূর্ণ। কারণ এনায়েতগঞ্জ, বাড্ডানগর, গণকটুলি, ভাগলপুর, হাজারীবাগ, নীলম্বর সাহা রোডসহ আরও কিছু এলাকা এই ওয়ার্ডের অন্তর্ভুক্ত। এখানে রয়েছে বেশ কয়েকটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ। এমনকি, লেদার টেকনোলজির মতো একটি বিখ্যাত ইনস্টিটিউটও রয়েছে। এই এলাকায় বেশ কয়েকটি শিল্পপ্রতিষ্ঠান গড়ে উঠেছে। যেখানে অনেক মানুষের কর্মসংস্থানের সুযোগ হয়েছে।

এই ২২নং ওয়ার্ডের আগামী দিনের যিনি কাউন্সিলর হবেন তাকে হতে হবে একেবারে চৌকস, এলাকাবাসীর প্রত্যাশা সে রকমই। এই প্রত্যাশা পূরণে এর মধ্যে প্রথমেই যে নামটি আসছে তিনি হলেন সাদেক হামিদ সাজু। বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে বুকে ধারণ করে মুক্তিযুদ্ধের শক্তির পক্ষে রাজনীতি করে আসছেন তিনি। বঙ্গবন্ধুর ডাকে সাড়া দিয়ে ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলেন তিনি। বিএনপির সময় জেল খেটেছেন। কিন্তু তার আদর্শ থেকে সরে যাননি।

তিনি এলাকার বিভিন্ন স্কুল কমিটির সঙ্গে যুক্ত ছিলেন, এখনও রয়েছেন। এমনকি বিভিন্ন মসজিদ কমিটির সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন।  এনায়েতগঞ্জ থেকে শুরু করে প্রতিটি মহল্লায় তিনি মহল্লাবাসীর সুখে-দুঃখে পাশে দাঁড়াচ্ছেন। এই সহমর্মিতা শুধু রাজনীতির জন্য নয়, সমাজসেবা থেকে তার এই ধারা অব্যাহত রয়েছে। বিভিন্ন মহল্লায় সরু রাস্তা প্রশস্ত করার ব্যাপারে তার অনেক ইচ্ছা রয়েছে। এমনকি, বিভিন্ন মহল্লায় বিভিন্ন ধরনের অপরাধ নির্মূল করার ব্যাপারে কাজ করে যাচ্ছেন তিনি।

সাদেক হামিদ সাজু আগামীতে কাউন্সিলর হয়ে বিজয়ী হলে এলাকাভিত্তিক বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজ করবেন। বিশেষ করে যেসব এলাকায় যানজট সৃষ্টি হচ্ছে তা নিরসন করার আপ্রাণ চেষ্টা চালাবেন তিনি। নাগরিক সুবিধার ক্ষেত্রে পয়ঃনিষ্কাশন, বর্ষায় জলাবদ্ধতা দূর করা, মশা নিধনের ব্যবস্থা করা, সমাজ থেকে চাঁদাবাজি, ইভটিজিং, নারী নির্যাতন বন্ধ করা, মাদককে এই এলাকা থেকে চিরদিনের মতো বিদায় করতে চান।

এ ছাড়াও যৌতুক গ্রহণ সমূলে বিনাশ করা আর যুবসমাজের জন্য খেলাধুলার মাঠের ব্যবস্থা করা, স্পোর্টস ক্লাব প্রতিষ্ঠা করা, ব্যায়ামাগার নির্মাণ, পার্ক নির্মাণ ও পাঠাগার প্রতিষ্ঠা করা। স্বাস্থ্যক্ষেত্রে ২২নং ওয়ার্ডের প্রতিটি নাগরিকের জন্য সেবা কার্ড চালু করা। তবে সবচেয়ে বেশি অগ্রাধিকার থাকবে সর্বস্তরের মানুষকে নিয়ে এলাকা থেকে সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজি বন্ধ করা। তিনি এই ওয়ার্ডকে একটি শান্তির ওয়ার্ড প্রতিষ্ঠা করতে চান। যেন এই ওয়ার্ডের মানুষ শান্তিতে বসবাস করতে পারে। মোটকথা, একটি মডেল ওয়ার্ড উপহার দেওয়ার জন্য কাজ করে যাবেন তিনি। হাজারীবাগ থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে তিনি একজন ব্যতিক্রম কাজের মাধ্যমে এলাকাবাসীর পাশে সবসময় থাকতে চান।

এই ওয়ার্ডের বর্তমান কাউন্সিলর তারিকুল ইসলাম সজীবও একজন আগামী দিনের প্রার্থী। তবে তিনি এখনও প্রচারে নামেননি। তিনি এই ওয়ার্ডের বিভিন্ন ধরনের উন্নয়নমূলক কাজ করেছেন। এখনও তার কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। এই ওয়ার্ডের আরও একজন কাউন্সিলর প্রার্থী মনিরুল হক বাবু। তিনি অনেকদিন ধরে ওয়ার্ডে বিভিন্ন ধরনের উন্নয়নমূলক কাজ করে আসছেন। ইতোমধ্যে এই ওয়ার্ডের বিভিন্ন এলাকায় তার পোস্টার চোখে পড়ে।

এক সময়কার ছাত্রনেতা ফ.খ.ম ইকবাল এই ওয়ার্ডের একজন কাউন্সিলর পদপ্রার্থী। এর আগেও তিনি সমাজসেবামূলক অনেক কাজ করেছেন। এ ছাড়াও প্রার্থী হিসেবে শফিকুর রহমান ও ফয়জুল করিম বাপির নাম শোনা যাচ্ছে।






সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]