ই-পেপার শনিবার ২৫ জানুয়ারি ২০২০ ১০ মাঘ ১৪২৬
ই-পেপার শনিবার ২৫ জানুয়ারি ২০২০

সবুজ সঙ্কেত পায়নি বিসিবি
ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশ: রোববার, ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১২:০০ এএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 27

আইসিসির ভবিষ্যৎ সফরসূচি অনুযায়ী আগামী বছরের শুরুতেই পাকিস্তান সফর করার কথা বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের। সফরে দুটি টেস্ট আর তিনটি টি-টোয়েন্টি খেলার কথা তাদের। টেস্ট দুটো আবার টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অংশ। এই সিরিজটি নিজেদের মাটিতেই আয়োজন করতে চাইছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। কিন্তু নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কা থাকায় শেষতক টাইগাররা ওই সফরে যাবে কিনা, তা ঝুলে আছে সরকারের সবুজ সঙ্কেতের ওপর। সেই সঙ্কেত এখন পর্যন্ত পায়নি বিসিবি। শনিবার এমনটাই জানিয়েছেন সংস্থার প্রধান কর্তাব্যক্তি নাজমুল হাসান পাপন।
২০০৯ সালে লাহোরে সফরকারী শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দলের ওপর সন্ত্রাসী হামলার পর পাকিস্তানে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট বন্ধ ছিল দীর্ঘদিন। তবে সাম্প্রতিক কয়েকটি দেশ পাকিস্তানে গিয়ে খেলে এসেছে। এখন সেখানে টেস্ট সিরিজ খেলছে শ্রীলঙ্কা। ওই সিরিজটি শুরুর ক্ষণেই পিসিবির সভাপতি জানিয়ে দিয়েছেন, নিরপেক্ষ ভেন্যুতে আর কোনো ম্যাচ খেলবে না পাকিস্তান। সফরকারী দলকে পাকিস্তানে গিয়েই খেলতে হবে। বাংলাদেশকেও নিজেদের মাটিতে খেলার আহ্বান জানিয়েছে তারা। যদিও এখনও এ নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্তে পৌঁছাতে পারেনি বিসিবি। হাতে বেশি সময়ও নেই। জানুয়ারি-ফেব্রুয়ারিতেই মাঠে গড়ানোর কথা সিরিজটি।
এখন প্রশ্ন হচ্ছে, টিম বাংলাদেশ কি খেলতে যাবে পাকিস্তানে? শনিবার গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে এই প্রশ্নের পরিষ্কার কোনো তথ্য দিতে পারেননি বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান। তবে এটা জানিয়ে দিলেন, নিরাপত্তা ইস্যুতে এখনও সরকারের তরফ থেকে সবুজ সঙ্কেত পায়নি বিসিবি, ‘নিরাপত্তার ব্যাপারে আমরা সরকারের কাছে আবেদন করেছিলাম, কিন্তু নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে জাতীয় দল ছাড়পত্র এখনও পায়নি। যদিও আমাদের মেয়েদের ও অনূর্ধ্ব-১৬ দল খেলে এসেছে। এক্ষেত্রে জাতীয় দল হোক, বয়সভিত্তিক দল হোকÑ নিরাপত্তা ছাড়পত্র সব একই। যেটুকু সম্ভাবনা আছে, মনে হচ্ছে আমরা পেয়ে যাব। পেলেই যাওয়ার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেব আমরা।’
সরকারের সবুজ সঙ্কেত মিললে পাকিস্তান সফরের বিষয়ে ক্রিকেটারদের সঙ্গে আলোচনায় বসবে বিসিবি। তারা পাকিস্তানে গিয়ে খেলতে রাজি কিনা সেটাও খতিয়ে দেখতে চায় সংস্থাটি। এ প্রসঙ্গে নাজমুল হাসান বললেন, ‘নিরাপত্তা ছাড়পত্র পেলে আমরা ক্রিকেটারদের সঙ্গে বসব। দেখি ওরা তখন কী জানায়। অনেকগুলো ব্যাপার আছে। সব বুঝে-শুনেই সিদ্ধান্ত নেব আমরা।’ তবে কোনো ক্রিকেটার ও কোচিং স্টাফের কোনো সদস্য পাকিস্তান সফরে যেতে না চাইলে চাপ দেবে না বিসিবি। নাজমুল হাসান পরিষ্কার করেই বললেন বিষয়টা, ‘কেউ পাকিস্তান সফরে যেতে না চাইলে জোর করা হবে না। কাউকে জোর করে পাঠাব না।’
আগামী চার-পাঁচ দিনের মধ্যে পাকিস্তান সফরের ব্যাপারটা পরিষ্কার হয়ে যাবে, এমনটাই জানালেন নাজমুল হাসান। এখন দেখার অপেক্ষা, কোথাকার পানি কোথায় গড়ায়।








সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]