ই-পেপার শনিবার ২৫ জানুয়ারি ২০২০ ১০ মাঘ ১৪২৬
ই-পেপার শনিবার ২৫ জানুয়ারি ২০২০

সমস্যা নেই মোহামেডান-রাসেলের
ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশ: রোববার, ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১২:০০ এএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 28

ফেডারেশন কাপ দিয়ে শুরু হতে যাচ্ছে ঘরোয়া ফুটবলের নতুন মৌসুম। ১৮ ডিসেম্বর থেকে শুরু হতে যাওয়া মৌসুমসূচক ওই টুর্নামেন্টকে ঘিরে এখন প্রস্তুতিতে ব্যস্ত ক্লাবগুলো। এরইমধ্যে শুক্রবার হয়ে গেছে টুর্নামেন্টের ড্র। ১৩টি দল শিরোপার জন্য লড়বে চারটি গ্রুপে ভাগ হয়ে। তিনটি গ্রুপে তিনটি করে দল আছে। ‘ডি’ গ্রুপে দলসংখ্যা ৪টি। ওই গ্রুপে পড়েছে মোহামেডান, মুক্তিযোদ্ধা আর শেখ রাসেলের মতো দল। যেহেতু প্রতি গ্রুপের শীর্ষ দুই দল পরের রাউন্ডে উঠবে, অনেকই তাই ‘ডি’ গ্রুপটাকে ডেথ গ্রুপ বলছেন। এতে অবশ্য সমস্যা দেখছে না মোহামেডান আর শেখ রাসেল।
নিজেদের গ্রুপটাকে ডেথ গ্রুপ মানতেই নারাজ শেখ রাসেল। দলসংখ্যা বেশি হওয়ায় সুবিধাই দেখছে তারা। মৌসুমের শুরুতেই বেশি ম্যাচ খেলার সুযোগ মিলছে যে। তাই গ্রুপের প্রতিপক্ষ নিয়ে ভাবছেন না শেখ রাসেলের কোচ সাইফুল বারি টিটু। তার দাবি, প্রতিটি গ্রুপই কঠিন এবং কঠিন প্রতিদ্বন্দ্বিতাই হবে এবার, ‘শুধু দলের নাম দেখেই কোনো গ্রুপকে বিচার করা সম্ভব নয়। গত মৌসুমে প্রতিটি ম্যাচই কঠিন এবং প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হয়েছিল।’
‘ডি’গ্রুপের দলগুলোকে গ্রুপ পর্বে একটি করে ম্যাচ বেশি খেলতে হচ্ছে। এটাকে সমস্যা হিসেবে না দেখে বরং সুবিধা হিসেবেই দেখছে শেখ রাসেল আর মোহামেডান। রাসেল কোচ টিটু বলেছেন, ‘এটা আমাদের জন্য ভালো। কারণ অন্য গ্রুপের দলগুলো থেকে আমরা একটি ম্যাচ বেশি খেলার সুযোগ পাচ্ছি।’ টিটুর সুরেই সুর মিলিয়েছেন মোহামেডানের কোচ শন লিন, ‘ভালোই হয়েছে। আমি খুব খুশি চার দলের গ্রুপে পড়ায়। কারণ আমরা অন্য ৯ দলের চেয়ে গ্রুপপর্বে একটি ম্যাচ বেশি খেলার সুযোগ পাব। মৌসুম শুরুতে ম্যাচ বেশি পাওয়া মানেই লিগের জন্য প্রস্তুতি ভালো হবে।’
ঐতিহ্যবাহী সাদাকালো শিবিরের ম্যানেজার ইমতিয়াজ আহমেদ নকিব আত্মবিশ^াসী, কঠিন গ্রুপের বাধা টপকে কোয়ার্টার ফাইনালে খেলবে দল। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেছেন, ‘এই গ্রুপে পড়াতে আমরা খুশি। কারণ আমাদের তারুণ্যনির্ভর দলটি আত্মবিশ্বাসী পরবর্তী রাউন্ডে যেতে। ম্যাচ বেশি থাকায় সুযোগটাও বেশি থাকছে।’
ফেডারেশন কাপ হয়ে আসছে ১৯৮০ সাল থেকে। এ পর্যন্ত মোট ৩০টি আসর অনুষ্ঠিত হয়েছে। এবারের আসরটি ৩১তম, আসরের টাইটেল স্পন্সর হয়েছে ‘টিভিএস’। এবার চ্যাম্পিয়ন দল পাবে ৫ লাখ টাকা পুরস্কার। রানার্সআপ দলের জন্য রয়েছে ৩ লাখ টাকা। এ ছাড়া অংশগ্রহণ ফি বাবদ প্রতিটি দল পাবে ১ লাখ টাকা করে।









সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]