ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা রোববার ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ ৫ আশ্বিন ১৪২৭
ই-পেপার রোববার ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০

সৌদির ভুলে বাংলাদেশির কবর হলো পাকিস্তানে
সময়ের আলো অনলাইন
প্রকাশ: রোববার, ১৯ জানুয়ারি, ২০২০, ৮:৩০ পিএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 175

বাংলাদেশের এক ব্যক্তি মারা গেছেন সৌদিতে। সেখানকার এক হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের ভুলে তার কফিন চলে গেছে পাকিস্তানে। এবং সেখানেই তাকে দাফন করা হয়েছে।

নিহত ব্যক্তির নাম রুহুল আমিন। তার বাড়ি কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার পীরকাশিমপুর গ্রাম। নিহত রুহুল আমিন ২০১৭ সালের ২৪ নভেম্বর ভাগ্যের সন্ধানে সৌদিতে পাড়ি জমিয়েছিলেন। ঋণ করে সৌদি যাওয়া রুহুল আমিনের আশা ছিল, বাড়িতে নিয়মিত টাকা পয়সা পাঠাবেন। তার পরিবার একটু ভালো খেয়েপরে দিনাতিপাত করতে পারবে। কিন্তু মস্তিষ্কের রক্তক্ষরণজনিত অসুখে সৌদির এক হাসপাতালে তার সে আশার প্রদীপ নিভে গেল চিরতরে। রুহুল আমিন মারা যান ২০১৯ সালের ১৬ ডিসেম্বর।

তার পরিবার লাশ আনার জন্য আত্মীয়-স্বজনের দ্বারে দ্বারে ঘুরে ঋণ করে রুহুল আমিনের লাশ দেশে আনার ব্যবস্থা করেন।

এ ব্যাপারে রুহুল আমিনের স্ত্রী মিলি আক্তার জানান, ‘তার স্বামী সৌদি আরবে মারা যাওয়ার পরদিন লাশ দেশে ফিরিয়ে আনতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন করা হয়। এরই প্রেক্ষিতে ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের পরিচালক (প্রশাসন ও উন্নয়ন) শোয়াইব আহমাদ খান গত ২২ ডিসেম্বর সৌদি আরবের জেদ্দায় নিযুক্ত বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল কার্যালয়ের কাউন্সেলরের (শ্রম) নিকট পত্র প্রেরণ করেন। রুহুল আমিনের মরদেহ দেশে ফিরিয়ে আনতে শোকাহত পরিবারের সদস্যরা হাসপাতালে চিকিৎসার আড়াইলাখ টাকা স্বজনদের কাছ থেকে ধারদেনা করে পরিশোধ করেন এবং বিমানযোগে তাকে দেশে ফিরিয়ে আনতে ১ লাখ ২০ হাজার টাকা দিয়ে ৩টি টিকেট ক্রয় করেন। বাড়ির পাশে দাফনের জন্য কবরস্থানও চিহ্নিত করা হয়। পরে জানতে পারেন সৌদি আরবের কিং ফয়সাল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের ভুলে লাশ পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে পাকিস্তানে। পরে সেখানেই তাকে দাফন করা হয়।’




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, নির্বাহী সম্পাদক : শাহনেওয়াজ দুলাল, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে
প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ। নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]