ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা মঙ্গলবার ৭ এপ্রিল ২০২০ ২২ চৈত্র ১৪২৬
ই-পেপার মঙ্গলবার ৭ এপ্রিল ২০২০

শ্রীবরদীতে নানার ধর্ষণে নাতনি অন্তঃসত্ত্বা
শেরপুর প্রতিনিধি
প্রকাশ: বুধবার, ২২ জানুয়ারি, ২০২০, ৪:২৫ পিএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 236

শেরপুরের শ্রীবরদীতে প্রেমিককে বিয়ের জন্য বশে আনতে তেলপড়া আনতে গিয়ে ৬০ বছর বয়সী নানা কর্তৃক ধর্ষণের ঘটনায় ৫ মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েছে অষ্টম শ্রেণিতে পড়ুয়া নাতনী।

উপজেলার কাকিলাকুড়া ইউনিয়নের মলামারি পূর্বপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনা প্রকাশের অভিযোগের প্রেক্ষিতে ধর্ষক বদর আলীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, কাকিলাকুড়া বালিকা দাখিল মাদরাসায় অষ্টম শ্রেণিতে পড়ুয়া কিশোরীর সাথে প্রতিবেশী এক যুবকের প্রেমের সম্পর্ক চলছিল। একপর্যায়ে প্রেমিক যুবক কিশোরীকে বিয়ে করতে অস্বীকৃতি জানায়।

ঘটনাক্রমে ৫-৬ মাস আগে এ কথা জেনে ফেলে প্রতিবেশী ৫ সন্তানের জনক ও কিশোরীর নানার চাচাতো ভাই বদর আলী। পরে বদর আলী প্রেমিককে তেলপড়া দিয়ে বিয়েতে রাজি করাতে পারবে বলে নাতনি কিশোরীকে নিজের গোয়ালঘরে ডেকে নিয়ে যায়। গোয়ালঘরে নেওয়ার পর নাকেমুখে তেলপড়া ছিটিয়ে তান্ত্রিক সেজে নাতনিকে বিভিন্ন সময় একাধিকবার ধর্ষণ করে দাদা বদর আলী। ঘটনা ফাঁস হওয়ার ভয়ে ও প্রেমিককে পাওয়ার আশায় কিশোরী এ বিষয়ে মুখ খোলেনি।

কিন্তু সময়ের ব্যবধানে কিশোরী অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে শারিরীক পরিবর্তন দেখা দেয়। পরে চিকিৎসকের শরণাপন্ন হলে ৫ মাসের অন্তঃসত্ত্বা বলে জানান চিকিৎসক।

এমতাবস্থায় গতকাল মঙ্গলবার (২১ জানুয়ারি) এ নিয়ে গ্রাম্য সালিশের আয়োজন করা হলেও স্থানীয় ইউপি সদস্য মিস্টার মিয়া এটি সালিশ-অযোগ্য অপরাধ বলে সালিশে যাননি। ফলে সালিশ ভেঙে যায় ও ভিকটিমের পরিবার শ্রীবরদী থানায় অভিযোগ দায়ের করে। অভিযোগের প্রেক্ষিতে পুলিশ ধর্ষক বদর আলীকে গ্রেফতার করে ও ভিকটিমকে উদ্ধার করে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য শেরপুর হাসপাতালে প্রেরণ করে। এ ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]