ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা শুক্রবার ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ৮ ফাল্গুন ১৪২৬
ই-পেপার শুক্রবার ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২০

মোহাম্মদপুরে মডেল ওয়ার্ড তৈরির প্রতিশ্রুতি ৪ প্রার্থীর
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশ: রোববার, ২৬ জানুয়ারি, ২০২০, ১২:০০ এএম আপডেট: ২৬.০১.২০২০ ১২:২৪ এএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 45

রাজধানী জুড়েই যেন আয়োজন চলছে এক মহোৎসবের। ব্যানার, ফেস্টুন, মাইকে করে নিত্য নতুন নানা লিরিকের গানের মহড়ায় নির্বাচনি উন্মাদনায় মেতেছে নগরবাসী। আসন্ন ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের নির্বাচনে মেয়রপ্রার্থীদের পাশাপাশি প্রচারকার্যে পিছিয়ে নেই কাউন্সিলর প্রার্থীরা। নিজ নিজ এলাকার বিদ্যমান প্রকট সমস্যাগুলো সমাধানে নির্বাচনে জয়ী হতে দিন-রাত চালাচ্ছেন নির্বাচনি প্রচারণা। রাজধানীর অন্য সব ওয়ার্ডগুলোর মতো নির্বাচনি প্রচারণা চলছে মোহাম্মদপুর এলাকায়ও। সম্প্রতি অন্যতম আলোচিত কিশোর গ্যাং, মাদকের বিস্তার রোধ করতে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হয়েছেন ওই এলাকার ২৯ নম্বর ওয়ার্ডের চার প্রার্থী।
মোহাম্মদপুর থানার তাজমহল রোড, আজিজ মহল্লা, টিক্কাপাড়া, বিজলী মহল্লা, জহুরী মহল্লা ও পিসি কালচারের এক অংশ নিয়ে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের ২৯ নং ওয়ার্ড। এই ওয়ার্ডটির পূর্ব অংশে জেনেভা ক্যাম্প, পশ্চিমে রিং রোড, উত্তরে জহুরী মহল্লা, দক্ষিণে শাহজাহান রোড। দুটি বিহারি ক্যাম্প, রাজধানীর সবচেয়ে বড় চালের বাজার ও কাঁচাবাজার টাউন হল মার্কেট থাকায় এ ওয়ার্ডটির আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি অন্য যেকোনো ওয়ার্ডের তুলনায় কিছুটা খারাপ। চাঁদাবাজি, ছিনতাই, কিশোর গ্যা গ্রুপের নানা অপকর্ম, ইভটিজিং রীতিমতো সাধারণ ঘনটায় পরিণত হয়েছে। বিভিন্ন স্থানে ইয়াবাসহ মাদকের ছড়াছড়ি। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী, স্থানীয় প্রশাসনের অগোচরেই এসব চলছে বছরের পর বছর। এসব অনাচার-অত্যাচার-অপকর্ম থেকে এ ওয়ার্ডবাসীর মুক্তি দিতেই বিবেকের তাড়নায় এবার সিটি করপোরেশন নির্বাচনে কাউন্সিলর পদে প্রার্থী হয়েছেন এলাকার ক্লিন ইমেজের সুপরিচিত মুখ এম নুরুল ইসলাম শাহেদ। স্বতন্ত্র এ প্রার্থীর মার্কা রেডিও। ঢাকা বিশ^বিদ্যালয় থেকে স্নাতক সম্পন্ন করে দুবাইভিত্তিক পরিবহন সংস্থা এমিরেটাসের শীর্ষ পদে সফলভাবে চাকরিজীবন সম্পন্ন করা এই প্রার্থী বলেন, এলাকার সাধারণ মানুষ অনেকটা অসহায়ের মতো। নানা অরাজকতা হজম করছেন। তারা এ অবস্থার পরিবর্তন চান। ভোটের মাধ্যমে তারা নীরব জবাব দেওয়ার প্রতীক্ষায় আছেন।
পরিবর্তনের অঙ্গীকার নিয়ে ২২ দফা প্রতিশ্রুতি দিয়ে শাহেদ যাচ্ছেন ভোটারদের দ্বারে দ্বারে। তিনি জানান, এলাকাবাসীর কাছ থেকে প্রত্যাশার তুলনায় বেশি সাড়া পাচ্ছেন। যুগ যুগ ধরে চলা অরাজকতা থেকে মুক্তি চায় এই ওয়ার্ডের দুই লাখ মানুষ। ৩৯ হাজার ভোটারের এই ওয়ার্ডে যানজট, জলাবদ্ধা নিরসন বিশুদ্ধ পানির নিশ্চয়তা প্রদানই তার লক্ষ্য। শুধু তাই নয় শিক্ষা ব্যবস্থার উন্নয়ন হলে এলাকার সব সমস্যার সমাধান অনেকাংশে কমে আসবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।
আওয়ামী লীগ সমর্থিত এবং এই ওয়ার্ডের বর্তমান কাউন্সিলর নুরুল ইসলাম রতন (ঠেলাগাড়ি) বলেন, এই ওয়ার্ডের উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছি দিন-রাত। মোহাম্মদপুরের ঐতিহ্য রক্ষা করার পাশাপাশি মাদকমুক্ত সমাজ গঠন করাই আমার লক্ষ্য। তাই নগরবাসীর কাছে আবারও কাজ করার সুযোগ তৈরি করে দেওয়ার অনুরোধে প্রতিদিন প্রচারণা চালাচ্ছি।
এই ওয়ার্ডের আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক সলিম উল্লাহ সলু (ঘুড়ি) বলেন, মোহাম্মদপুরকে মডেল ওয়ার্ড তৈরি করার লক্ষ্য আমাদের। জয়ী হলে এই এলাকার জলাবদ্ধতা দূরীকরণের পাশাপাশি ওয়ার্ডবাসীর জন্য বিশুদ্ধ পানির ব্যবস্থা করব।
তবে এই এলাকা অত্যন্ত অবহেলিত একটি এলাকা হিসেবে মন্তব্য করে ওয়ার্ডের বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী মো. লিটন মাহমুদ বাবু (টিফিন ক্যারি) বলেন, সরকারি দলের কাউন্সিলররা নিজেদের পকেটভারী করতেই দিন-রাত কাজ করে। আমরা মশামুক্ত, মাদকমুক্ত মোহাম্মদপুর উপহার দেব নির্বাচিত হলে।




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]