ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা সোমবার ১০ আগস্ট ২০২০ ২৬ শ্রাবণ ১৪২৭
ই-পেপার সোমবার ১০ আগস্ট ২০২০

ইউটিউবে স্টান্টবাজি করে ভিউ বাড়ানোতে স্থায়িত্ব নেই : স্বাগতা
সময়ের আলো অনলাইন
প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১১:০২ এএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 118

দুই বাংলার জন্য নির্মিত হইচই ওয়েব প্ল্যাটফর্মের একটি কাজ করেছেন স্বাগতা। ভালোবাসা দিবসে যদিও তিনি কয়েকটি নাটকে কাজ করেছেন। কিন্তু ওয়েব ফিকশনটি নিয়ে তার খুশির মাত্রাটা একটু বেশিই। স্বাগতার ভাষ্য, আমি ভ্যালেন্টাইনের জন্য নির্মিত হইচই প্ল্যাটফর্মের ‘পাঁচফোড়ন’-এ অভিনয় করলাম। আমাদের দুই গুণী নির্মাতা গিয়াস উদ্দিন সেলিম ও নূরুল আলম আতিক এবার দুটো ফিকশন বানিয়েছেন। আমি গিয়াস উদ্দিন সেলিমের নির্দেশনায় কাজ করলাম। আমার চরিত্রটি মজার। ভ্যালেন্টাইনে এটি আমার সেরা উপহার। আমি এখানে গানও গেয়েছি।


গান নিয়ে প্রতিবারই পরিকল্পনা করেন স্বাগতা। কিন্তু করা হয়ে ওঠে না। তাই এবার বললেন, গান নিয়ে এখনই কিছু বলতে চাই না। করে ফেলার পর বলব। আসলে কাজের ব্যস্ততায় গান করা হয়ে উঠছে না।

গান করতে না পারলেও গানের সঙ্গে পরোক্ষভাবে যুক্ত আছেন তিনি। মঞ্চে তার পরবর্তী কাজটিই গান নিয়ে।

অনলাইন প্ল্যাটফর্মে কাজের প্রসঙ্গ উঠতেই স্বাগতা নিজের দৃষ্টিভঙ্গি তুলে ধরলেন। তিনি বলতে শুরু করলেন, যখন থেকে ইউটিউবভিত্তিক কাজ শুরু হলো তখনও আমি প্রচুর প্রস্তাব পেয়েছি। প্রথমদিকে যে ধরনের কন্টেন্ট বানানো হচ্ছিল তাতে মনে হয়েছিল আমার কাজ করার সময় আসেনি। হইচইয়ের যে কাজটা করলাম তা আন্তর্জাতিক মানের। এ ছাড়াও মিঠাইয়ের ‘ওয়েডিং বেল’ করলাম। এসব করার পর আমি আমার কাজের স্বাদটা বুঝতে পেরেছি। আমার মতো কাজ করার সুযোগ আমিও পাচ্ছি, যারা নির্মাতা তারাও বুঝতে পেরেছে শুধু স্টান্টবাজি করে ইউটিউব ভিউ বাড়ানোতে কোনো স্থায়িত্ব নেই।

স্বাগতা সম্প্রতি দুটো ছবির কাজ শেষ করেছেন। একটি নূরুল আলম আতিকের ‘মানুষের বাগান’, অন্যটি গিয়াস উদ্দিন সেলিমের ‘পাপ-পুণ্য’। সিনেমার প্রস্তাব স্বাগতা প্রায়ই পেয়ে থাকেন। এ বিষয়ে তিনি বলেন, সিনেমার প্রস্তাব আমি মাঝে-মধ্যেই পাই। আমি রাজ্জাক আঙ্কেলের সিনেমায় কাজ করেছি। মান্না ভাইয়ের সঙ্গে সুপারহিট সিনেমায় অভিনয় করেছি। প্রথম ডিজিটাল সিনেমা ‘ডুবসাঁতার’-এ যুক্ত ছিলাম। এরপর মাঝের কয়েক বছর ইন্ডাস্ট্রি কীভাবে পরিচালনা হয়েছে তা বুঝতে পারিনি।
সুপারহিট সিনেমায় কাজের পরও স্বাগতা সিনেমায় নিয়মিত হননি। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এত বছর সিনেমা না করার কারণ আমি গল্প পাইনি। নায়কের পাশে দাঁড়িয়ে শুধু নাচব? কাঁদব? এ জায়গায় নিজেকে কখনও দেখতে চাইনি। সে জন্য সে রকম কাজ করিনি। নিজেকে অভিনেত্রী হিসেবে প্রস্তুত করেছি। এ সময়ে এসে আমি গল্প প্রধান ছবিতে কাজের অপেক্ষা করছি।
সিনেমার সমস্যা প্রসঙ্গ তুলে ধরে স্বাগতা বলেন, বিদেশি সিনেমা এলে আমি কোনো ক্ষতি দেখছি না। আমাকে যদি অ্যাঞ্জেলিনা জোলির সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে অভিনয় করতে হতো তাহলে উপকার হতো। যেহেতু সেভাবে এলো না, হয়তো নিজেরাই কিছু একটা করব।

স্বাগতা বর্তমানের সিনেমা নিয়ে যথেষ্ট আশাবাদী। বর্তমানে দর্শক হলে যাচ্ছে সিনেপ্লেক্সের সৌজন্যে। গল্পই থাকছে সিনেমার প্রাণ। তিনি তাই বললেন, এখন গল্পপ্রধান সিনেমা হচ্ছে। আমি কাজ করার আগ্রহ খুঁজে পাচ্ছি।

স্বাগতা বর্তমানে উপস্থাপনা করছেন দুটো অনুষ্ঠানে। একটি টেলিভিশনে ‘সোনালী দিনের রূপালী গল্প’ অন্যটি বাংলাদেশ বেতারে ‘তারার সাথে কিছুক্ষণ’। স্বাগতা অভিনীত কয়েকটি ধারাবাহিক বিভিন্ন চ্যানেলে প্রচার হচ্ছে। তার মধ্যে রয়েছে ‘গোল্লাছুট’, ‘ভালোবাসার আলো আঁধার’ ও ‘চিটার ডট কম’। এর বাইরে আগের কিছু কাজও প্রচার হচ্ছে। 




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]