ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা সোমবার ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ৩ ফাল্গুন ১৪২৬
ই-পেপার সোমবার ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০

অমর একুশে গ্রন্থমেলা
চত্বর জুড়ে বাসন্তী হাওয়া
মোতাছিম বিল্লাহ নাঈম
প্রকাশ: শুক্রবার, ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১২:০০ এএম আপডেট: ১৩.০২.২০২০ ১১:২৫ পিএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 35

মাঘ শেষে শুরু হলো ফাল্গুন। সেই সঙ্গে বিদায় নিল শীত। ফাল্গুনী হাওয়ার উচ্ছ্বাসে তরুণ-তরুণীরা সেজেছিল বাসন্তী রঙে। খোঁপায় হলুদ গাঁদা, মাথায় টায়রা, আর শাড়ির ভাঁজে ভাঁজে ছিল পলাশ-শিমুলের রঙ। বৃহস্পতিবার অমর একুশে গ্রন্থমেলায়ও ছড়িয়ে পড়ে এই রঙের বাহার। তরুণীদের বাসন্তী রঙের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে তরুণরাও সেজেছিল হিমুর হলুদ সাজে। এ সাজ বইমেলা থেকে ছড়িয়েছিল শাহবাগ চত্বর হয়ে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস পর্যন্ত। ফাগুনের উচ্ছ্বাসে নাচ-গান আনন্দে মেতে ছিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদ ও টিএসসি প্রাঙ্গণ।

আর পলাশ-শিমুলের রঙ ছড়িয়ে ছিল বইমেলায়। প্রকাশকদের চোখে-মুখেও ছিল বাসন্তী আবহ। গ্রন্থমেলার ১২তম দিনে উপচে পড়া ভিড়ে অন্যরকম এক সৌন্দর্য ছিল। বইমেলা বিভিন্ন প্রাঙ্গণ ঘুরে দেখা যায়, পাঠকরা ব্যাগভর্তি বই হাতে নিয়ে বাসায় ফিরছেন। গল্প, উপন্যাস, কবিতা, সাইন্সফিকশনসহ এদিন প্রায় সবধরনের বইই ভালো বিক্রি হয়েছে। এই বিক্রি ভালোবাসা দিবসেও অব্যাহত থাকবে বলে আশা করছেন প্রকাশকরা।

‘কসমিক লাইফ’: এবারের অমর একুশে বইমেলার অন্যতম আকর্ষণ কর্নেল মো. রাব্বি আহসানের লেখা ‘কসমিক লাইফ’ বই। বইটি লেখার জগতে তার প্রথম প্রয়াস। যা আত্মোন্নয়নমূলক ও অনুপ্রেরণামূলক জীবনদর্শনের প্রতিচ্ছবি। ২০৭ পৃষ্ঠার বইটি চমৎকার এক তথ্যভান্ডার। মানবজীবনের আবশ্যিক প্রতিটি অলিগলি লেখক গভীরভাবে স্পর্শ করেছেন। জীবনের সাধারণ কথাগুলোই গল্প, বাণী, যুক্তি, উদাহরণসহ উপস্থাপন করেছেন লেখক। বইতে তিনি পুরো বিশ্বের, সব ধর্মের এবং সবসময়ের উদাহরণ দিয়েছেন। লেখক বলেছেন, প্রত্যেক মানবের মধ্যেই যেন একেকটি ছায়া মহাবিশ্বের চলাচল।

মানবের সেই অলৌকিক আঁধার ও অসাধারণ সক্ষমতার আকর এই বইটি। বইটি পাওয়া যাচ্ছে বইমেলার শিশু কানন ৮০১ নম্বর স্টলে।গ্রন্থমেলার মূলমঞ্চে অনুষ্ঠিত হয় সুব্রত বড়ূয়া রচিত বঙ্গবন্ধুর জীবনকথা শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সুজন বড়ূয়া। আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন লুৎফর রহমান রিটন এবং মনি হায়দার। লেখকের বক্তব্য প্রদান করেন সুব্রত বড়ূয়া। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. আবু হেনা মোস্তফা কামাল এনডিসি।

প্রাবন্ধিক বলেন, আমাদের সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন বঙ্গবন্ধুর নীতি আদর্শ দর্শন জানা এবং চর্চা করা। নতুন প্রজন্মের নবীন-তরুণদের মধ্যে বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে যত আগ্রহ সৃষ্টি করা যাবে, তারা ততই দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হবে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় সোনার বাংলা গড়ার পক্ষে এটা হতে পারে অত্যন্ত জরুরি উদ্যোগ।

আলোচকরা বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এক বিশাল সমুদ্রের মতো যিনি তার চেতনায় ধারণ করেছেন বাংলা, বাঙালি ও বাংলাদেশ। বঙ্গবন্ধুর জীবনকথা গ্রন্থের সংক্ষিপ্ত পরিসরে লেখক সুব্রত বড়ূয়া বঙ্গবন্ধুর বর্ণাঢ্য ও সংগ্রামী জীবনকে ইতিহাস ও তথ্যের ভিত্তিতে তুলে আনার প্রয়াস পেয়েছেন। এককথায় বলা যায় সাবলীল ভাষায় লেখা বঙ্গবন্ধুর জীবন ও কর্ম বিষয়ক এটি এক অনন্য গ্রন্থ।

গ্রন্থের লেখক বলেন, বঙ্গবন্ধুর জীবনকথা গ্রন্থটি লেখার পেছনে যে দুটি বিষয় আমার প্রেরণা হয়ে কাজ করেছে তা হলো বঙ্গবন্ধুর প্রতি শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা। এ গ্রন্থে আমি হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি বঙ্গবন্ধুর জীবনকে ইতিহাস, সংগ্রাম ও কর্মের প্রেক্ষাপটে তুলে আনার চেষ্টা করেছি। সভাপতির বক্তব্যে ড. মো. আবু হেনা মোস্তফা কামাল এনডিসি বলেন, সুব্রত বড়ূয়ার এ গ্রন্থ অত্যন্ত তথ্যনিষ্ঠ এবং বিশ্লেষণ-ঋদ্ধ। আমাদের এবং নতুন প্রজন্মের জন্য প্রয়োজনীয় একটি গ্রন্থ। বাংলাদেশ ও বঙ্গবন্ধু একই সূত্রে গাঁথা।

আজ লেখক বলছি অনুষ্ঠানে নিজেদের নতুন বই নিয়ে আলোচনা করেন রফিক-উম-মুনীর চৌধুরী, মৌলি আজাদ, রাসেল আশেকী এবং শোয়েব সর্বনাম। কবিকণ্ঠে কবিতা পাঠ করেন কবি মাহবুব সাদিক, শাহজাদী আঞ্জুমান আরা, মুনীর সিরাজ এবং মাসুদ হাসান। আবৃত্তি পরিবেশন করেন আবৃত্তিশিল্পী মো. শাহাদাৎ হোসেন, অনিমেষ কর এবং তামান্না সারোয়ার নীপা। নৃত্য পরিবেশন করেন সৌন্দর্য প্রিয়দর্শিনী ঝুম্পা-এর পরিচালনায় নৃত্য সংগঠন ‘জলতরঙ্গ ডান্স কোম্পানী’র নৃত্য শিল্পীরা। সঙ্গীত পরিবেশন করেন কণ্ঠশিল্পী দীনাত জাহান মুন্নী, আঞ্জুমান আরা শিমুল, কাজী মুয়ীদ শাহরিয়ার সিরাজ জয়, মো. রেজওয়ানুল হক এবং সঞ্জয় কুমার দাস। যন্ত্রাণুষঙ্গে ছিলেন পলাশ হালদার (পারকেশন), টুটুল বড়ূয়া (বেইজ গীটার), এমিল মুরছালিন (গীটার), মো জাহিদুর রহমান (কি-বোর্ড) এবং পলাশ চক্রবর্তী (অক্টোপ্যাড)।

আজকের অনুষ্ঠানসূচি : শুক্রবার অমর একুশে গ্রন্থমেলার ১৩তম দিন। মেলা চলবে সকাল ১০টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত। বেলা ১১টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত মেলায় থাকবে শিশু প্রহর। সকাল ১০টায় শিশু-কিশোর আবৃত্তি প্রতিযোগিতার চূড়ান্ত নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। বিকাল ৪টায় গ্রন্থমেলার মূলমঞ্চে অনুষ্ঠিত হবে আসাদ চৌধুরী রচিত সংগ্রামী নায়ক বঙ্গবন্ধুর শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন শোয়াইব জিবরান। আলোচনায় অংশগ্রহণ করবেন আনিসুর রহমান এবং নূরুন্নাহার মুক্তা। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন অধ্যাপক খুরশীদা বেগম। সন্ধ্যায় রয়েছে কবিকণ্ঠে কবিতাপাঠ, আবৃত্তি এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।





সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]