ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা  বুধবার ১ এপ্রিল ২০২০ ১৭ চৈত্র ১৪২৬
ই-পেপার  বুধবার ১ এপ্রিল ২০২০

সখীপুরে কুঁচে ব্যবসায় ধস, বেকার শতাধিক পরিবার
সখীপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি
প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১০:৪৬ পিএম আপডেট: ২৮.০২.২০২০ ১:৩৯ এএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 16

চীনে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ায় টাঙ্গাইলের সখীপুরে কুঁচে রফতানি বাণিজ্যে ধস নেমেছে। প্রায় দেড় মাস ধরে রফতানি বন্ধ হয়ে যাওয়ায় কুঁচে ব্যবসায়ীরা পথে বসার উপক্রম হয়েছে। ফলে লাখ লাখ টাকার ব্যবসায়িক ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে উপজেলার কুঁচে ব্যবসায়ী ও সংগ্রহকারীরা। প্রায় দুই শতাধিক পরিবার ব্যাংকঋণ ও দাদন পরিশোধ নিয়ে বর্তমানে পড়েছেন বিপাকে।
উপজেলার কুঁচে ব্যবসায়ী আজাহার আলী, সন্তুস কোচ ও সুভল চন্দ্র কোচ জানান, সখীপুর উপজেলার কীর্তনখোলা, কালিয়ানপাড়া, কালিদাশ, নলুয়া, মহানন্দপুর, পাথার, ইছাদিঘিসহ বিভিন্ন এলাকা থেকে প্রতি মাসে লাখ লাখ টাকার কুঁচে রফতানি হতো ঢাকা হয়ে চীনে। চীনে দৈনন্দিন খাদ্যতালিকায় কুঁচে থাকায় শুধু চীনেই রফতানি হতো ৯০ শতাংশ। বাকি ১০ শতাংশ কুঁচে করা হতো হংকং, তাইওয়ানসহ বিশে^র কয়েকটি দেশে। ফলে এ ব্যবসার সঙ্গে জড়িতরা ভাগ্য বদল করেছিল অনেক পরিবারই। কিন্তু দেশটিতে করোনাভাইরাস মারাত্মক আকারে বিস্তার করায় ২০ জানুয়ারি থেকে চীনের সঙ্গে কুঁচে রফতানি সম্পূর্ণ বন্ধ হয়ে যায়।
উপজেলার কুঁচে সংগ্রহকারী কালিদাশ গ্রামের রতন চন্দ্র কোচ জানান, আগে আড়তদারদের কাছ থেকে দাদন নিয়ে পুকুর, ডোবা-নালা, খাল-বিল থেকে কুঁচে ধরে ৫শ থেকে ৭শ টাকা পর্যন্ত আয় করতাম। বর্তমানে রফতানি বন্ধ হওয়ায় কোনো আড়তদার কুঁচে কিনতে চাচ্ছে না। তাই তাদের সংসার চালানো এখন খুবই কঠিন হয়ে পড়েছে।
উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম বলেন, করোনা সংক্রমণের জন্য চীনে কুঁচে আমদানি বন্ধ করে দিয়েছে। যে কারণে এলাকার কুঁচে ব্যবসায় ধস নেমেছে। এটি একটি সাময়িক সমস্যা। তবে মজুদকৃত কুঁচে দেশীয় বাজারে বিক্রি করলে একটু হলেও লোকসানের হাত থেকে রক্ষা পাবে কুঁচে সংগ্রহকারী জেলে ও আড়তদাররা বলে তিনি জানান।






সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]