ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা শুক্রবার ৩ এপ্রিল ২০২০ ১৯ চৈত্র ১৪২৬
ই-পেপার শুক্রবার ৩ এপ্রিল ২০২০

গ্রিজম্যানে রক্ষা বার্সেলোনার
ক্রীড়া ডেস্ক
প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১১:৪৪ পিএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 6

নাপোলিকে ৩০ মিনিটেই এগিয়ে নিলেন দ্রিস মের্টেন্স। বেলজিক ফরোয়ার্ডের রেকর্ডগড়া গোলে প্রতিপক্ষের মাঠ সান পাওলোতে হারের শঙ্কায় পড়েছিল বার্সেলোনা। তবে রক্ষা আতোয়ান গ্রিজম্যানে। ফরাসি তারকার গোলেই চ্যাম্পিয়ন্স লিগে শেষ ষোলোর প্রথম লেগে ১-১ সমতায় শেষ করেছে কিকে সেতিয়েনের শিষ্যরা। মঙ্গলবার একই রাতে একই মঞ্চে ডুবেছে চেলসি। নিজেদের মাঠ স্টামফোর্ড ব্রিজে বায়ান মিউনিখের কাছে উড়ে গেছে ৩-০ গোলে।
ইউরোপের শ্রেষ্ঠত্বের মঞ্চে শুরুতে এলোমেলো ফুটবলই উপহার দেয় নাপোলি-বার্সা। দুদলের ভুল পাস আর অগোছালো আক্রমণেই কেটে যায় প্রথম ২০ মিনিট। যদিও ছন্দে ফিরে প্রথমার্ধে ঠিকই গোল আদায় করে নেয় স্বাগতিকরা। বিপরীতে প্রথম ৪৫ মিনিটে গোলমুখে ছিল না লিওনেল মেসিদের কোনো শট। ২৭ মিনিটের মাথায় অবশ্য সুযোগ এসেছিল পাল্টা আক্রমণে। কিন্তু মেসি-গ্রিজম্যানে সাজানো আক্রমণ বৃথা যায় কোস্তাস মানোলাসের প্রতিরোধে।
এর তিন মিনিট বাদেই স্তব্ধ বার্সা শিবির। নাপোলিকে এগিয়ে নেন মের্টেন্স। জুনিয়র ফিরপোর ব্যর্থতায় বল পেয়ে যান বেলজিক তারকা। লক্ষ্যভেদ করেন বুলেট গতির শটে, গোলরক্ষক মার্ক আন্দ্রে টের স্টেগান ছিলেন দর্শক। ওই গোলেই নাপোলির হয়ে সর্বোচ্চ গোলের তালিকার চূড়ায় থাকা মারেক হামসিককে (১২১) স্পর্শ করেন মের্টেন্স। তার রেকর্ডগড়া গোলে এগিয়ে থেকেই বিরতিতে যায় স্বাগতিকরা। তবে দ্বিতীয়ার্ধে বেশিক্ষণ লিড আগলে রাখতে পারেনি নাপোলি।
৫৭ মিনিটে বার্সা শিবিরে স্বস্তি ফেরান গ্রিজম্যান। অতিরিক্ত রক্ষণাত্মক খেলার মাশুলই দেয় নাপোলি। সার্জিও বুসকেটসের রক্ষণ চেরা পাসে বল পেয়ে নেলসন সেমেদো নিচু ক্রসে খুঁজে নেন গ্রিজম্যানকে। বল নিয়ন্ত্রণে নিয়ে অনায়াসেই নাপোলির জাল কাঁপান ফরাসি ফরোয়ার্ড (১-১)। এরপর আর কোনো গোল না হলে ড্রয়েই সমাপ্ত হয় ম্যাচ। তার আগে ৮৯ মিনিটেই দুই হলুদ কার্ড (লাল কার্ড) দেখেন আর্তুরো ভিদাল। এতে করে ১৮ মার্চ ক্যাম্প ন্যুতে ফিরতে লেগে তাকে ছাড়াই খেলতে হবে বার্সাকে।
এদিকে নিজেদের মাঠে প্রথম লেগে ৩-০ ব্যবধানে হেরে কার্যত চ্যাম্পিয়ন্স লিগ থেকে বিদায়ের পথেই চেলসি। গোলশূন্য প্রথমার্ধের পর স্বাগতিকদের ওপর চড়াও হয় বায়ার্ন। তিন মিনিটের ব্যবধানে জোড়া গোল সার্জিও জিনাব্রির। ৫১ মিনিটে বায়ার্নকে এগিয়ে নেন রবার্ট লেভানদোস্কির বাড়ানো ক্রস ধরে। একই সতীর্থের অ্যাসিস্টে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন জার্মান মিডফিল্ডার। আচমকা ঝড়ে দুই গোল হজম করে আর ম্যাচে ফেরা হয়নি ব্লুজদের।
উল্টো ৭৬ মিনিটে তৃতীয় গোল হজম করে চেলসি। এবারের গোলদাতা আগে দুই গোলে অবদান রাখা লেভানদোস্কি। আলফোনসোর পাস ধরে স্কোরলাইন ৩-০ করেন তিনি। জার্মান জায়ান্টরাও জয় নিশ্চিত করে এই ব্যবধান ধরে রেখে। হারের ম্যাচে শেষের দিকে বাজে ফাউল করে সরাসরি লাল কার্ড দেখেন চেলসির মার্কোস আলোনসো। অর্থাৎ ১৮ মার্চ আলিয়াঞ্জ অ্যারেনায় ফিরতি লেগে ব্লুজদের অগ্নিপরীক্ষা দিতে হবে নির্ভরযোগ্য ডিফেন্ডারকে ছাড়াই।






সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]