ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা সোমবার ৬ এপ্রিল ২০২০ ২২ চৈত্র ১৪২৬
ই-পেপার সোমবার ৬ এপ্রিল ২০২০

নৌ পরিবহন ব্যবস্থায় প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ নজর রয়েছে: প্রতিমন্ত্রী
পাবনা প্রতিনিধি
প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১০:১৭ পিএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 839

নৌ বন্দরগুলোর আধুনিকায়ন এবং নৌ পথে পরিবহন ব্যবস্থাকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিশেষ গুরুত্বের সঙ্গে দেখেন বলে জানিয়েছেন নৌ পরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী। বৃহস্পতিবার আনুষঙ্গিক সুবিধাদিসহ পাবনা বেড়া উপজেলার নগড়বাড়ী ঘাটে ৫ শত ১৩ কোটি ৯০ লক্ষ টাকা ব্যয়ে নির্মিত নদী বন্দর নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেন সরকারের নৌ পরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী। 

বিআইডব্লিউটিএ’র আয়োজনে ঘাট এলাকায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের জন্য সুধী সমাবেশের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যা বলেন তিনি তা বাস্তবায়ন করেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা মোতাবেক এই নৌ বন্দরকে আধুনিকীকরণসহ এর কার্যক্রম বৃদ্ধি করা হচ্ছে। আগামী দুই বছরের মধ্যে এই  নৌবন্দরের কাজ সমাপ্ত হবে। বঙ্গবন্ধুর সেতুর উপর চাপ কমিয়ে আনার জন্য বিকল্প পথ হিসাবে এই নৌবন্দর বিশেষ ভূমিকা রাখবে বলে জানান তিনি। বলেন, নদী পথে পরিবহন ব্যবস্থার উন্নতির জন্য প্রধানমন্ত্রী বিশেষ নজর দিয়েছেন। এই নৌ বন্দর পূর্ণাঙ্গভাবে চালু হলে বৃহত্তর উত্তর বঙ্গের সাথে অন্য এলাকার নৌ পরিবহন ব্যবস্থায় বিশেষ ভূমিকা রাখবে। বর্তমান সরকারের আমলে যত উন্নয়ন হয়েছে এর আগে কোন সরকার আমলে এই ধরনের উন্নয়ন কাজ হয়নি।
 
তিনি আরো বলেন, আগামী দিনে দক্ষিণ এশিয়ার সবচাইতে শক্তিশালী রাষ্ট্রে পরিণত হবে বাংলাদেশ। মুক্তিযুদ্ধর পরে এই বাংলাদেশে নদীর নাব্যতা সংকট নিরসের জন্য ড্রেজার মেশিন ছিলো সাতটি। আার বর্তমানে সরকারি ও বেসরকারি মিলিয়ে প্রায় দুইশত ড্রেজার রয়েছে। বর্তমানে শেখ হাসিনার সরকার দেশের মানুষের ভাগ্যের উন্নয়নের জন্য কাজ করছে। অমরা এই নদী বন্দরের পাশাপাশি বাঘাবাড়ি নদী বন্দরকেউ আধুনিকরন করার জন্য প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। 

বাংলাদেশ নৌপরিবহন মন্ত্রনালয়ের উদ্যেগে ও বাংলাদেশ অভ্যন্তরীন নৌ পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ) এর তত্ত্বাবধানে আগামী বছরের জুন মাসে এই নৌবন্দর নির্মাণ প্রকল্পের কাজ শেষ হবে। এম এইচ ডিপি  মডেল স্কুল মাঠে অনুষ্ঠিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিআইডব্লিউটিএর চেয়ারম্যান গোলাম সাদেক এর সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন পাবনা জেলা প্রশাসক কবির মাহমুদ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গৌতম কুমার বিশ^াস, মানিকগঞ্জ সিবালয় উপজেলার চেয়ারম্যান রেজাউর রহমান খান, সুজানগর উপজেলার চেয়ারম্যান শাহীনুজ্জামান, আটঘোড়িয়া উপজেলার চেয়ারম্যান তানভীর ইসলাম প্রমুখ।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, পাবনাবাসীর দীর্ঘদিনের চাহিাদা ও প্রত্যাশার পরে এই অঞ্চলে রেল যোগাযোগ স্থাপন করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাধেশের প্রতিটি জেলাতে রেল যোগাযোগ স্থাপনের উদ্যেগ গ্রহণ করেছেন। এই নগরবাড়ী হতে আরিচা নৌ বন্দরে ফেরি চলাচল বন্ধ রয়েছে। খুব অল্পদিনের মধ্যে পর্যালোচনা করে নদীর নাব্যতা ও ড্রেজিং কাজ শেষ করে আবারো ফেরী চলাচল করা হবে বলে ঘোষনা দেন তিনি। অনুষ্ঠান শেষে নৌ প্রতিমন্ত্রী নদী পথ দিয়ে আরিচা ঘাট হয়ে ঢাকার উদ্যেশ্যে রওনা দেন তিনি।  




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]