ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা বৃহস্পতিবার ২ এপ্রিল ২০২০ ১৮ চৈত্র ১৪২৬
ই-পেপার বৃহস্পতিবার ২ এপ্রিল ২০২০

কুষ্টিয়া সব রাস্তা গিয়ে মিশেছে ছেউড়িয়ায়
আজ থেকে শুরু হচ্ছে লালন স্মরণোৎসব
কুষ্টিয়া প্রতিনিধি
প্রকাশ: শনিবার, ৭ মার্চ, ২০২০, ৩:৩৪ পিএম আপডেট: ০৭.০৩.২০২০ ৩:৪৭ পিএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 158

দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে হাজার হাজার মানুষ এসে জমা হয়েছেন কুষ্টিয়ায়। কুষ্টিয়া শহর সংলগ্ন কুমারখালী উপজেলার ছেউড়িয়া গ্রাম। এখানেই ফকির লালন শাহের আখড়া বাড়ি। দোল পূণিমার সাধুসঙ্গ উপলক্ষে রবিবার থেকে শুরু হচ্ছে লালন স্মরণোৎসব। সাধুসঙ্গে দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে প্রায় ১০ হাজার বাউল ফকির এসেছেন আখড়া বাড়িতে। আর বাউলদের সাধু সঙ্গকে ঘিরে লালন একাডেমী আয়োজন করেছে লালন স্মরণোৎসব।


রবিবার সন্ধ্যায় সাংস্কৃতিক বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী একেএম খালিদ স্মরণোৎসবের উদ্ধোধন করবেন। তিনদিন লালন মুক্তমঞ্চে লালন গীতি পরিবেশন করবেন শিল্পীরা। মরা কালিনদীর পাড়ে বসেছে গ্রাম্য মেলা। তিনদিন ব্যাপী অনুষ্ঠান উপভোগ করতে ছেউড়িয়ার সকল রাস্তা এখন মানুষের পদচারণায় মুখরিত। কুষ্টিয়ার সকল পথ গিয়ে মিশেছে লালন মেলায়। সাধু সঙ্গ, স্মরণোৎসব আর মেলাকে কেন্দ্র করে শুক্রবার থেকেই বাউল ফকির ভক্তরা আসন নিয়ে বসেছেন। শিষ্যরা গুরু সেবায় ব্যস্ত। সাধু সঙ্গ শুরু হবে রবিবার দুপুরে। আগামীকাল সোমবার পুন্যসেবার মধ্য দিয়ে সাধুসঙ্গের সমাপ্তি। কিন্তু লালন একাডেমীর লালন স্মরণোৎসব চলবে মঙ্গলবার মধ্যরাত পর্যন্ত। মেলাও শেষ হবে মঙ্গলবার মধ্যরাতে। বাউলরা এসেছেন সাধুসঙ্গ করতে।

সাধু সঙ্গ সম্পর্কে ভাবনগর শিল্প ও সাহিত্য চর্চা কেন্দ্রের সভাপতি ওস্তাদ হবিবর রহমান বিশু বলেন, ফকির লালন শাহের বাউল মতকে একটি স্বতন্ত্র ধর্ম বলে মনে করেন বাউল ভক্তরা। বাউলদের এই ধর্মমতের আলোচনার জায়গা সাধুসঙ্গ। সাধুসঙ্গে বাউলরা মিলিত হন। গুরুশিষ্যের মধ্যে চোঁখে চোঁখে ভাবের আদান প্রদান আর তত্ত¡জ্ঞানের আলোচনায় মেতে ওঠেন তারা। লালনেরআধ্যাত্মিক জ্ঞান চর্চায় পার হয়ে যায় প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত সাধুসঙ্গ। ফকির লালন শাহের তিরোধান দিবস এবং দোলপূণিমার তীথিতে লালন আখড়াবাড়িতে সাধু সঙ্গে মিলিত হয় বাউলরা। লালন একাডেমীর সাবেক সাধারণ সম্পাদক তাইজাল আলী খান বলেন,ফকির লালন শাহ জীবনদর্শায় দোল পূর্ণিমার তীথিতে সাধুসঙ্গ করতেন তারই ধারাবাহিকতায় শত শত বছর ধরে সাধু সঙ্গ হয়ে আসছে। স্মরণোৎসবকে কেন্দ্র করে তিন স্তরের নিরাপত্তা বলয় তৈরী করা হয়েছে।

কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার তানভীর আরাফাত বলেন, সকল প্রকার বিশৃংঙ্খলা থেকে অনুষ্ঠানকে রক্ষা করতে বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন রয়েছে এবং সাদা পোষাকে পুলিশ নজরদারী রাখছে।

লালন একাডেমীর সভাপতি ও জেলা প্রশাসক মোঃ আসলাম হোসেন বলেন, প্রতিবারের মতো এবারো সাধুসঙ্গে বাউলদের খাবারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। স্মরণোৎসব উপলক্ষে অনুষ্ঠানের যে আয়োজন করা হয়েছে তা ভালো মতো সম্পন্ন হবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]