ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা  বুধবার ৮ এপ্রিল ২০২০ ২৪ চৈত্র ১৪২৬
ই-পেপার  বুধবার ৮ এপ্রিল ২০২০

ডিআইজি মিজান ও বছিরের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন
আদালত প্রতিবেদক
প্রকাশ: বুধবার, ১৮ মার্চ, ২০২০, ৮:৫৭ পিএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 29

৪০ লাখ টাকা ঘুষ লেনদেনের অভিযোগে করা মামলায় সাময়িক বরখাস্ত পুলিশের উপ-মহাপরিদর্শক (ডিআইজি) মিজানুর রহমান ও দুদকের পরিচালক এনামুল বাছিরের বিরুদ্ধে করা মামলায় অভিযোগ গঠন করেছেন আদালত।

বুধবার ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৪ এর বিচারক শেখ নাজমুল আলম এ অভিযোগ গঠন করেন। অভিযোগ গঠনের মধ্যে দিয়ে এ মামলার বিচার কাজ শুরু হল।

অভিযোগ গঠন শুনানির সময় মিজানুর রহমান ও এনামুল বাছিরকে কারাগার থেকে আদালতে হাজির করে পুলিশ।

এর আগে গত ১৬ মার্চ আসামি মিজানুর রহমানের পক্ষে আইনজীবী এহসানুল হক সমাজী অব্যাহতির আবেদনের ওপর শুনানি করেন। তাছাড়া এদিন আসামি এনামুল বাছিরের পক্ষে সিনিয়র আইনজীবী সৈয়দ রেজাউর রহমান শুনানি করেন।

রাষ্ট্রপক্ষে দুদকের আইনজীবী মোশারফ হোসেন কাজল অভিযোগ গঠনের পক্ষে শুনানি করেন। এসময় আদালত উপস্থিত আসামিদের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ পড়ে শোনান। এরপর তাদের কাছে জানতে চাওয়া হয় তারা দোষী না নির্দোষ। এসময় আসামিরা নিজেদের নির্দোষ দাবি করে আদালতের কাছে মামলা থেকে অব্যাহতি চায়।

উভয় পক্ষের শুনানি শেষে বিচারক অব্যাহতির আবেদন নাকচ করে আসামিদের বিরুদ্ধে বিচার শুরুর আদেশ দেন। অভিযোগ গঠনের পর আদালত সাক্ষ্য গ্রহণের জন্য আগামী ২৩ মার্চ দিন নির্ধারণ করেন।

এর আগে ১৯ জানুয়ারি আসামিদের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন দুদকের পরিচালক শেখ মো. ফানাফিল্যা।

আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ হচ্ছে, দুদকের বরখাস্ত পরিচালক বাছির নিজে আর্থিকভাবে লাভবান হওয়ার জন্য ডিআইজি মিজানের কাছ থেকে ৪০ লাখ টাকা ঘুষ নিয়েছেন। মিজান দুর্নীতির অভিযোগ থেকে নিষ্কৃতি পাওয়ার জন্য বাছিরকে ঘুষ দিয়েছেন। বাছির সরকারি কর্মকর্তা হিসেবে দুদক থেকে পাওয়া দায়িত্ব পালন করেননি। অসততার প্রমাণ দিয়েছেন। যা দন্ডবিধিরসহ দুর্নীতি প্রতিরোধ আইন এবং মানিলন্ডারিং প্রতিরোধ আইনে শাস্তিযোগ্য অপরাধ।

একইভাবে মিজানও সরকারি কর্মকর্তা হয়ে নিজের বিরুদ্ধে ওঠা অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগ থেকে অব্যাহতি পাওয়ার আশায় অর্থাৎ অনুসন্ধানের ফলাফল নিজের পক্ষে নেওয়ার অসৎ উদ্দেশ্যে বাছিরকে প্রভাবিত করেছেন। যা দন্ডবিধিসহ দুর্নীতি প্রতিরোধ আইন এবং মানিলন্ডারিং প্রতিরোধ আইনে শাস্তিযোগ্য অপরাধ।

এ অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) বরখাস্ত পরিচালক খন্দকার এনামুল বাছির ও ডিআইজি মিজানুর রহমানের বিরুদ্ধে গত বছরের ১৬ জুলাই দুদক পরিচালক শেখ মো. ফানাফিল্যা বাদী হয়ে দুদকের ঢাকা সমন্বিত জেলা কার্যালয়-১ এ মামলাটি করেন।




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]