ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা  বুধবার ৮ এপ্রিল ২০২০ ২৪ চৈত্র ১৪২৬
ই-পেপার  বুধবার ৮ এপ্রিল ২০২০

গ্ল্যামারের বাইরে আমাকে ভাবতে পারছে
সময়ের আলো অনলাইন
প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ১৯ মার্চ, ২০২০, ১১:১৭ এএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 212

আজমেরী হক বাঁধন। বিজ্ঞাপন, নাটকে কাজ করে নিজের আলাদা গ্রহণযোগ্যতা তৈরি করেন তিনি। কাজ করেছিলেন সিনেমাতেও। তারপর ছন্দপতন। জীবনের নানা বাঁকের পর বাঁধন ফের নিয়মিত হতে যাচ্ছেন শোবিজে। কাজ করেছেন একটি সিনেমাতে। সেসব নিয়ে কথা বলেছেন তিনি। সাক্ষাৎকার নিয়েছেন মোহাম্মদ তারেক
সিনেমা দিয়ে শোবিজে আবার নিয়মিত হতে যাচ্ছেন। বিরতিটা দীর্ঘ হয়ে গেল না?
একেকজন মানুষের জীবনের স্ট্র্যাটেজি একেক রকম। আমরা সব কিছু ছকে বাঁধা নিয়মে ফেলতে চাই। মানুষের জীবনে ভুল করার স্বাধীনতা থাকতে হবে। আমার ভুল ছিল, এখনও বলি। এরপর আমার একটা উপলব্ধি হলো। এতদিন আমি কাজ করার জন্য কাজ করেছি। আমার ভালো লাগা থেকে কাজ করা, চরিত্র দেখে অভিনয়ের ক্ষুধা থেকে কাজ করার কথা চিন্তা করার সময় পর্যন্ত আমি পাইনি। আমি সবসময় জীবনযুদ্ধে জর্জরিত একটা মেয়ে। অভিনেত্রী হিসেবে অভিনয়ের জায়গাটা প্রমাণ করার সময় আমি পাইনি। সুযোগও এসেছিল। কিন্তু আমার সময়ের সমস্যার কারণে জাজের কাজটি করা হয়নি। ২০১৮-এর শেষে সদ্য সমাপ্ত সিনেমার সঙ্গে যুক্ত হলাম। আমি এক বছর ওদের দিয়েছি। আমার পরিশ্রম, মেধা, সময় ও বিশ^াসকে বিনিয়োগ করেছি। এখন রিটার্ন কী পাব জানি না। গ্ল্যামারের বাইরে আমাকে ভাবতে পারছে। এই সিনেমার টিমের সঙ্গে গত এক বছর কাজ করে আমার কাজের প্রতি ডেডিকেশন, ভালোবাসা বেড়েছে।
সিনেমার ব্যাপারে কতটুকু বলা যাবে?
ওদের কৌশলটা ভিন্ন। ওরা চায় ওয়ার্ল্ড প্রিমিয়ার যখন হবে তখনই বলবে। এখন তো করোনার কারণে ফিল্ম ফেস্টিভ্যালগুলো বন্ধ। কারণ তারা আমাকে যে সম্মান দিয়েছে আমিও সম্মানটা রাখতে চাই। তারা যখন মনে করবে কিছু বলার মতো হয়েছে তখন বলবে।
সিনেমার নাম তো ‘মারিয়া’; নয়?
না, এটা শতভাগ নিশ্চিত থাকেন। সিনেমাটি নারীর ক্ষমতায়ন নিয়েও না। এখানে কোনো নারী বিশ^জয় করছে এমনটি দেখানো হয়নি। তবে এটি নারীভিত্তিক গল্প। সিনেমায় ফিমেল প্রোটাগনিস্ট প্রধান চরিত্র।
ভবিষ্যতে সিনেমাতেই শুধু কাজ করবেন?
অভিনয় আমার পেশা। আমার পক্ষে শুধুই সিনেমা করা সম্ভব না। অভিনয়কে পেশা হিসেবে যখন নিয়েছি তখন অন্য কাজও করব। আমি নিয়মিত বিভিন্ন ফ্যাশন হাউজের ফটোশুট করছি। সিনেমাও করতে চাই, নাটকও করতে চাই।
ওয়েব সিরিজও জমে উঠেছে এ সময়ে...
আমি কাজ শুরু করেছি যেহেতু, এখন সব কাজই করব। এখন যে পরিস্থিতি চলছে, তা ঠিক হোক। তারপর কাজ তো করতেই হবে।
একসময় উপস্থাপনা করেছেন। আবার কি দেখা যাবে?
সব যদি ঠিকঠাক থাকে তা হলে ঈদে উপস্থাপনা করতে পারি একটা অনুষ্ঠানে। কয়েকটা জায়গায় কথা হয়েছে। এখনও আমি সেভাবে নিশ্চিত নই।
সাম্প্রতিক সময়ে নাটকে ‘সিন্ডিকেট’ নিয়ে বেশ চর্চা হয়। এ বিষয়ে আপনার মন্তব্য কেমন?
আমি যখন নিয়মিত কাজ করতাম তখন ‘সিন্ডিকেট’ হচ্ছে কি না তা দেখার সময় ছিল না। কারণ আমি গড়পড়তা কাজ করতাম। এখনও সেভাবে যুক্ত হইনি তাই এখন পর্যন্ত তার মুখোমুখি হইনি। যখন মেইনস্ট্রিমে ঢুকব তখন হয়তো ‘সিন্ডিকেট’-এর মুখোমুখি হতে পারি। এখনও জানি না কী হয়।
শোবিজে বয়স লুকানোর প্রবণতা দেখা যায়। আপনি ব্যতিক্রম...
মিডিয়াতে আগে বাচ্চা নিয়ে কোনো কথা বলত না। ছবি দেখাত না। মনে করত বাচ্চার কথা শুনলে দর্শকের কাছে তার গ্রহণযোগ্যতা কমে যাবে। এ ক্ষেত্রে মেয়েটার দোষ নেই। সমাজ তাকে এমন হতে শিখিয়েছে, তোমার বিয়ে হয়েছে, বাচ্চা হয়েছে মানে তুমি মরার জন্য রেডি হও। তখন মেয়েটা পাগল হয়ে এমন করে। এটাও আমি ভাঙতে চাই। মা হওয়া অত্যন্ত পাওয়ারফুল একটা ব্যাপার। একটা মেয়ে যখন মা হয় তখন সে বোঝে কতটা পাওয়ারফুল সে।
জীবন নিয়ে কোনো পরিকল্পনা করছেন?
গত ছয় বছর আমার জীবন নিয়ে এত ব্যস্ত ছিলাম, আমার জীবনে যে একজন পুরুষের দরকার তা ভাবার সময়ই পাইনি। তা ছাড়া একজন পুরুষ আমার জীবনে যেভাবে এসেছে সেভাবে আর কোনো পুরুষকে ভালো লাগার সুযোগও ছিল না। এখন মেয়ে বড় হয়ে গেছে, মনে হয় একজন জীবনসঙ্গী থাকলে ভালোই হতো।




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]