ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা শুক্রবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ ১০ আশ্বিন ১৪২৭
ই-পেপার শুক্রবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০

সুড়ঙ্গের ওপারে আলোর মশাল!
ক্রীড়া ডেস্ক
প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ২৬ মার্চ, ২০২০, ১১:৪৬ পিএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 22

করোনার বিষে বিষাক্ত হয়ে পড়েছে বাতাস। কোভিড-১৯ মহামারীতে বিশ^ জুড়ে বার্তা একটাইÑ ঘরে থাকুন, নিরাপদে থাকুন। যেমনটা নিশ্চিতে লকডাউনের পথে বিশ^ আর থমকে গেছে ক্রীড়াঙ্গন। এক কথায়, করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধে মানবজাতি লড়ছে অন্ধকার সুড়ঙ্গে থেকে! এমন কঠিন পরিস্থিতিতে আশার বাণী শুনিয়েছেন আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটির (আইওসি) প্রেসিডেন্ট টমাস বাখ। তার বিশ^াস, সুড়ঙ্গের ওপারে আলোর মশাল জ্বালাবে পিছিয়ে যাওয়া টোকিও অলিম্পিক।
বিশে^র সবচেয়ে বড় ক্রীড়া আসর পেছানোর ঘোষণা আসে মঙ্গলবার। টোকিও ২০২০ আসরের আয়োজকরা এবং জাপান সরকার জানায়, অলিম্পিক এবং প্যারিলিম্পিক হবে ২০২১ গ্রীষ্মে। এরপরই ভিডিও বার্তা নিয়ে হাজির বাখ। আইওসির সর্বোচ্চ অভিভাবক বর্তমান পরিস্থিতিকে দেখছেন মানবজাতির যুদ্ধজয়ের মঞ্চ হিসেবে। তার মতে, করোনাভাইরাস মহামারী কেটে যাওয়ার পর আগামী গ্রীষ্মে অলিম্পিকের মঞ্চ হতে পারে জয়যুক্ত ‘মানবতার উদযাপন’।
সংস্থার মিডিয়া চ্যানেলে ভিডিও বার্তা নিয়ে আইওসি প্রেসিডেন্ট হাজির মঙ্গলবার সন্ধ্যায় (স্থানীয় সময়) আসর স্থগিতের পর। অলিম্পিকের আদর্শের ধারাবাহিকতা (এই প্রথম পেছাল) পেছালেও উজ্জ্বল আগামীকালের প্রত্যাশায় বাখ। তিনি বলেন, ‘অলিম্পিক ২০২১ সালে হলেও আমরা অলিম্পিক গেমস, টোকিও ২০২০ উপভোগ করতে সক্ষম হব। আপনি নিশ্চিত হতে পারেন যে, আপনি নিজের অলিম্পিক স্বপ্ন সত্য করতে পারবেন।’
সারা বিশে^র ন্যায় বাখেরও জানা নেই, অন্ধকার সুড়ঙ্গে থাকা মানবজাতির মুক্তি মিলবে কবে। তবে অলিম্পিকের মশালে আলো জ্বালাতে চান তিনি, ‘মানবতা অনিশ্চয়তায়। আমরা সকলে একত্রিত খুব অন্ধকার সুড়ঙ্গে, এটা কত লম্বা তা জানা নেই এবং জানি না, আগামীকাল কী হতে চলেছে। তবে আমরা চাই এই সুড়ঙ্গের শেষে অলিম্পিক মশাল আলো হয়ে উঠুক। তাই স্থগিত গেমস আয়োজনের চ্যালেঞ্জ নিতে কঠোর পরিশ্রম করছি আমরা, যেমনটা আগে কখনই হয়নি।’
ইতিহাসে এবারই প্রথমবারের মতো স্থগিত হলো অলিম্পিক। তাই নতুন করে সূচি সাজানোর কোনো ধারণাও নেই আইওসির। তবে প্রেসিডেন্টের বিশ^াস, সকলে সম্মিলিত প্রচেষ্টায় মিলবে সুফল, ‘এটির জন্য (নতুন করে সূচি সাজানো) আমাদের কোনো নীলনকশা নেই। তাই এটা নিশ্চিত করতে প্রয়োজন পড়বে প্রত্যেকের সম্মিলিত প্রচেষ্টা এবং অবদানের। কারণ এই প্লানেটে (গ্রহে) সবচেয়ে জটিল ইভেন্ট হলো অলিম্পিক।’
আইওসি প্রেসিডেন্ট তার বক্তব্যের ইতি টানেন এমন আশার বাণীতে, ‘গেমসের জন্য আমরা আপনাদের সেরা কন্ডিশন এবং সর্বোচ্চ নিরাপদ পরিবেশ সরবরাহ করতে চাই। কল্পনা করুন এটি আমাদের জন্য কী অর্থ হতে পারেÑ এই অলিম্পিক গেমস শেষ পর্যন্ত করোনাভাইরাসটির অভূতপূর্ব সঙ্কট কাটিয়ে ওঠা মানবতার উদযাপন হতে পারে। এটা আমাদের জন্য সত্যিকারের এক উদযাপন হতে পারে, অলিম্পিক চেতনার সত্যিকারের প্রদর্শনী, যা আমাদের সকলকে একত্রিত করে।’
সেই অলিম্পিক কবে অনুষ্ঠিত হবে, বর্তমান পরিস্থিতির আলোকে বলা মুশকিলই। তবে আয়োজকদের আশা, দ্রুতই নির্মূল করা যাবে করোনাভাইরাস আর সেটা হলে আগামী গ্রীষ্মেই বেজে উঠবে টোকিও অলিম্পিকের দামামা।






সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, নির্বাহী সম্পাদক : শাহনেওয়াজ দুলাল, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে
প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ। নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]