ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা শুক্রবার ৩ এপ্রিল ২০২০ ১৮ চৈত্র ১৪২৬
ই-পেপার শুক্রবার ৩ এপ্রিল ২০২০

করোনা প্রতিরোধে চার জেলায় লকডাউন
সময়ের আলো ডেস্ক
প্রকাশ: শুক্রবার, ২৭ মার্চ, ২০২০, ১০:২০ পিএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 7

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে দেশের চার জেলায় ‘লকডাউন’ ঘোষণা করা হয়েছে। এর মধ্যে টাঙ্গাইলের তিন পরিবার, পাবনায় রাশিয়ানদের ব্যবহৃত একটি বাড়ি, কুষ্টিয়ায় এক প্রবাসীর বাড়ি এবং হবিগঞ্জে একটি গ্রাম লকডাউনের আওতায় আনা হয়েছে। আমাদের নিজস্ব প্রতিবেদক এবং প্রতিনিধিদের পাঠানো খবরÑ
টাঙ্গাইল : বাসাইলে তিনটি পরিবারকে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে উপজেলার জাহাঙ্গীরনগর গ্রামের লুৎফর রহমান, ফজলুর রহমান ও আতোয়ার রহমানের তিনটি পরিবারকে লকডাউন ঘোষণা করা হয়। উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভ‚মি) মোহাম্মদ ফজলে এলাহী এ ঘোষণা করেন। ওই পরিবারে ১২ জন সদস্য রয়েছে। জানা যায়, মিরপুরে লকডাউন হওয়া একটি বাড়ি থেকে জাহাঙ্গীর আলম নামে এক ব্যক্তি তার স্ত্রী ও এক সন্তানকে নিয়ে পালিয়ে এসে তার শ^শুরবাড়ি উপজেলার জাহাঙ্গীরনগর গ্রামের লুৎফর রহমানের বাড়িতে আশ্রয় নেন। গত পাঁচ দিন ধরে তিনি ওই বাড়িতে অবস্থান করছিলেন। পরে স্থানীয়রা বিষয়টি টের পেয়ে প্রশাসনকে জানায়। খবর পেয়ে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভ‚মি) মোহাম্মদ জফলে এলাহী অভিযান চালিয়ে ওই বাড়ির তিনটি পরিবারকে লকডাউন ঘোষণা করেন। এ সময় জাহাঙ্গীর আলমের শ^শুর লুৎফর রহমানকে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।
পাবনা : ঈশ^রদী উপজেলার পৌর এলাকার মুশুড়িয়া নারিচা এলাকায় করোনা সন্দেহে রাশিয়ানদের ভাড়াকৃত ব্যবহৃত ‘হাউস-২’ লকডাউন করা হয়েছে। রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পে কর্মরত করোনাভাইরাস সন্দেহে বেলারুশের এক নাগরিককে বুধবার রাত ১০টার দিকে ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে। ওই বাড়িতে প্রকল্পে কর্মরত ১৫-১৬ জন বিদেশি নাগরিক বসবাস করছে বলে জানা যায়। বাড়িটির গেট তালাবদ্ধ করে রাতেই পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার শিহাব রায়হান লকডাউনের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি আরও জানান, ওই বাড়িতে বসবাসরত অন্য বিদেশিদেরও রূপপুর প্রকল্পে কাজে যেতে নিষেধ এবং প্রকল্পে প্রবেশের সিকিউরিটি পাস বøক করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন।
কুষ্টিয়া : শহরতলির কালিশংকরপুরের তৌহিদুল ইসলাম নামে এক সিঙ্গাপুরফেরত প্রবাসীর বাড়ি লকডাউন করেছে প্রশাসন। তৌহিদুলের সাত মাস বয়সি শিশুপুত্রের শরীরে করোনাভাইরাসের
প্রাথমিক লক্ষণ দেখা দেওয়ায় তাকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে আইসোলেশনে রাখা হয়েছে এবং ওই শিশুর দেহ থেকে নমুনা সংগ্রহ করে আইইডিসিআরে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে। সেই সঙ্গে ওই বাড়ির পাঁচ সদস্যকে বাধ্যতামূলক হোম কোয়ারেন্টাইনে নেওয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে কুষ্টিয়া সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা জুবায়ের হোসেন চৌধুরী ওই বাড়িটিকে লকডাউন ঘোষণা করেন। তিনি জানান, কালিশংকরপুরের সিঙ্গাপুর প্রবাসী তৌহিদুল ইসলাম ৯ মার্চ দেশে ফেরেন। দেশে ফেরার পর সে প্রশাসনকে না জানিয়ে আত্মগোপনে থাকেন। গত দুদিন ধরে তার শিশুর জ্বর, কাশি এবং গলাব্যথা দেখা দিলে বাড়ির লোকজন চিকিৎসকের কাছে যায়। এ ঘটনায় প্রবাসী তৌহিদের বাড়িটি লকডাউন করা হয়েছে। সন্দেহজনক আক্রান্ত শিশুটিকে আইসোলেশনে রাখা হয়েছে সেই সঙ্গে ওই বাড়ির বাকি পাঁচ সদস্যকে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকতে বলা হয়েছে। বাড়ির মালিক তৌহিদ পলাতক রয়েছেন।
হবিগঞ্জ : আজমিরীগঞ্জ উপজেলার বদলপুর ইউনিয়নের পাহাড়পুর-পূর্বকালনী গ্রামবাসী করোনাভাইরাসের সংক্রমণ থেকে নিজেদের রক্ষা করতে গ্রামকে লকডাউন করেছে। এতে পাহাড়পুর গ্রামের সঙ্গে অন্য গ্রামের স্থল ও নৌপথের সার্বিক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করে সব ধরনের যানবাহন চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। করোনার বিস্তার রুখতে ঢাকা, সিলেটসহ অন্যান্য স্থান থেকে আগত সব লোকজনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে। পাহাড়পুর গ্রামে ও বাজারে লোকজনের অবাধ চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। গ্রামের লোকদের সচেতন করতে ও সতর্ক
থাকতে ‘আতঙ্ক নয়, আমাদের সুরক্ষায় আমরাই সচেষ্ট’ এই সেøাগানকে সামনে রেখে গ্রামের সচেতন ছাত্র ও যুবসমাজ মাইকিং করে সচেতনতামূলক প্রচারণা এবং সতর্ক থাকার জন্য জোর প্রচারণা চালায়। গ্রামের সার্বিক আইনশৃঙ্খলা বজায় রাখতে স্থানীয় প্রশাসন ও উপজেলা প্রশাসনের সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেন সচেতন ছাত্র ও যুবসমাজ। স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান সুসেন জিৎ জানান, বিষয়টি আমার জানা নেই, তবে গ্রামবাসী যে উদ্যোগ নিয়েছে তাতে যেমন তাদের সুরক্ষা হবে তেমনি অন্য গ্রামের মানুষের জন্য ভালো।




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]