ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা  বুধবার ৩ জুন ২০২০ ২০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭
ই-পেপার  বুধবার ৩ জুন ২০২০

লোহাগাড়ায় তামাকের আগ্রাসন
লোহাগাড়া (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি
প্রকাশ: শনিবার, ২৮ মার্চ, ২০২০, ১২:০০ এএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 107

চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলার পুঁটিবিলা, চরম্বা এবং কলাউজানের হাঙ্গর ও টঙ্কাবতী খালের চরে দেদারসে চাষ হচ্ছে তামাক। এসব এলাকায় ক্ষতিকর তামাক চাষ কিছুতেই বন্ধ করা যাচ্ছে না। তামাক উৎপাদন কমাতে সরকারি ও বেসরকারি পর্যায়ে প্রচেষ্টা কেবল কৃষকদের নিরুৎসাহিত করার মধ্যেই সীমাবদ্ধ।
জানা গেছে, বিভিন্ন কোম্পানির লোভনীয় ফাঁদে পা দিয়ে তামাক চাষে ঝুঁকছেন কৃষকরা। এতে সাময়িক অর্থ চাহিদা মেটাতে পারলেও তামাকের দীর্ঘমেয়াদি জনস্বাস্থ্য ঝুঁকিতে পড়ছে বিস্তীর্ণ জনপদের মানুষ। দেশের শীর্ষ তামাক উৎপাদন প্রতিষ্ঠানগুলো উর্বর জমিতে তামাক চাষে কৃষকদের প্রলুব্ধ করছে। ফলে অতিরিক্ত লাভের আশায় তামাক চাষ করছে চাষিরা।
কলাউজান এলাকার কৃষক সাইফুল ইসলাম জানান, প্রতি কানি (৪০ শতক) তামাক চাষে খরচ পড়ে ৫০-৬০ হাজার টাকা আর সেই তামাক বিক্রি করে ১ লাখ থেকে ১ লাখ ২০ হাজার টাকা পাওয়া যায়; যা অন্য ফসলের তুলনায় প্রায় দ্বিগুণ। তাছাড়া তামাক চাষের জন্য চাষিদের বিভিন্ন কোম্পানি অগ্রিম টাকা-পয়সা দিয়ে থাকে। তাই চাষিরা বেশি লাভের আশায় তামাক চাষে ঝুঁকছে।
উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, পুঁটিবিলা ইউনিয়ন, চরম্বা এবং কলাউজানের হাঙ্গর ও টঙ্কাবতী খালের দুই তীরের চরসহ বিভিন্ন এলাকায় ব্যাপক তামক চাষ হয়। এ বছর ১১ হেক্টর জমিতে তামাক চাষ হয়েছে।
কলাউজান ইউপি চেয়ারম্যান আবদুল ওয়াহেদ বলেন, কলাউজানের পূর্ব সীমানা থেকে টঙ্কাবতী খালের পার্বত্য এলাকার চিম্বুক কালা পাহাড় পর্যন্ত দুই তীরবর্তী চরে ব্যাপক তামাক চাষ হয়। তামাক পাতা মাঠ থেকে আনার পর তা আগুন দিয়ে জ্বালানোর দরকার হয়। এর জন্য বনাঞ্চল থেকে কাঠ সংগ্রহ করার ফলে বৃক্ষশূন্য হয়ে যাচ্ছে বিস্তীর্ণ সবুজ এলাকা। এছাড়া পাতা ছাড়ানোর পর তামাক গাছের আঁটিগুলোকে রান্নার জ্বালানি হিসেবে ব্যবহার করে থাকে স্থানীয়রা। এসব জ্বলন্ত আঁটি থেকে নির্গত ধোঁয়া মারাত্মক স্বাস্থ্যহানি ঘটাচ্ছে।
লোহাগাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মোহাম্মদ হানিফ বলেন, তামাক স্বাস্থ্যের জন্য খুবই ক্ষতিকর। মানুষ সেটি জেনেও গ্রহণ করে থাকে। তামাক মূলত হৃৎপিণ্ড, লিভার ও ফুসফুসকে আক্রান্ত করে। ধূমপানের ফলে হার্ট অ্যাটাক, স্ট্রোক, ক্রনিক অবস্ট্রাক্টিভ পালমোনারি ডিজিজ ও ক্যানসারের ঝুঁকি বহুগুণ বাড়ায়।
উপজেলা কৃষি অফিসার মনিরুল ইসলাম বলেন, আমরা চাষিদের তামাক চাষে নিরুৎসাহিত করে থাকি। তামাকের পরিবর্তে ভুট্টা, সরিষা ও বিভিন্ন সবজি চাষে পরামর্শ দিয়ে থাকি।






সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]