ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা শুক্রবার ৫ জুন ২০২০ ২১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭
ই-পেপার শুক্রবার ৫ জুন ২০২০

অসময়ে জ্ঞান ফিরল নুরির!
ক্রীড়া ডেস্ক
প্রকাশ: শনিবার, ২৮ মার্চ, ২০২০, ১২:০০ এএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 20

দিব্যি খেলছিলেন মাঠে, ছুটছিলেন ফুটবল দখলের লড়াইয়ে। কিন্তু হঠাৎ আক্রান্ত হন মস্তিষ্কের রোগে। চিকিৎসকের ভাষায় ‘কার্ডিয়াক অ্যারহিদমিয়া অ্যাটাক’। হাসপাতালে নেওয়ার পর চলে যান কোমায়। দিনটা ছিল ৮ জুলাই, ২০১৭। বলা হচ্ছে আয়াক্সের আবদেলহাক নুরির কথা। অবশেষে ঘুম ভেঙেছে সম্ভাবনাময় এই ডাচ মিডফিল্ডারের। জীবন থেকে ৩৩ মাস (প্রায়) হারিয়ে ফেলা নুরির জ্ঞান ফিরল এমন সময়ে যখন করোনভাইরাসের প্রভাবে পুরো বিশ^ স্বাস্থ্যঝুঁকিতে।
তবে বিশ^ জুড়ে সময়টা খুব আতঙ্কের হলেও এ মুহূর্তে আনন্দের বন্যা আবদেলহাকের বাড়িতে। হবেই তো! প্রিয়জনের সাড়া পেয়ে যে আনন্দে আত্মহারা ডাচ ফুটবলারের পরিবার। আয়াক্স মিডফিল্ডারের কোমা থেকে ফেরার সুখবর দিয়েছেন তার বড় ভাই আবদেররাহিম নুরি, ‘সে এখন আর কোমায় নেই। সে সবে জেগেছে। সে ঘুমায়, হাঁচি দেয়, সে খায়, কাঁপছে, তবে বিছানা থেকে নামার মতো নয়। শয্যাশায়ী এবং এখনও আমাদের ওপর খুব নির্ভরশীল।’
আবদেররাহিম আরও জানান, ‘তার ভালো দিনগুলোতে যোগাযোগের একটি ধরন আছে, উদাহরণস্বরূপÑ ভ্রু বা হাসি দিয়ে নিশ্চিতকরণ। আপনারা লক্ষ করেছেন যে, সে এমনটা করতে পারেনি। সে অনেক দিন বাসায় ছিল না, তাকে সেখানেই (হাসপাতালে) যত্ন করতে হতো আমাদের। আমার অবশ্যই বলতে হবে, হাসপাতালের চেয়ে বাড়িতে সে অনেক ভালো আছে। কোথায় আছে সে তা বুঝতে পারে, পরিচিত পরিবেশে তার পরিবারের সঙ্গে থেকে সে ফিরে আসে।’
আবদেলহাকের জ্ঞান ফেরার পর আরও সতর্ক পরিবারÑ এমনটা উল্লেখ করে আবদেররাহিম বলেন, ‘আমরা তার সঙ্গে এমনভাবে কথা বলি যে সে অসুস্থ নয়। আমাদের কথোপকথনে তাকে রাখি। উদাহরণস্বরূপ তাকে নিয়ে বসার রুমে ফুটবল দেখি আমরা। আপনারা লক্ষ করবেন সে এটা খুব বেশি পছন্দ করে। সে প্রায় অনুভূতি প্রকাশ করে। কখনও সে আবেগী, তবে প্রায় হাসিও থাকে। সত্যিই এটা আমাদের শান্তি দেয়।’
২০১৭ সালে ৮ জুলাই অস্ট্রিয়ায় প্রীতি ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল আয়াক্স ও জার্মানির ওয়েডার ব্রিমেন। সেই ম্যাচে খেলাকালীন আবদেলহাকের কার্ডিয়াক অ্যাটাক হয়। অচেতন হওয়ার পর দ্রুতই মাঠে দেওয়া হয় প্রাথমিক চিকিৎসা। কিন্তু মস্তিষ্ক গুরুতর ক্ষতিগ্রস্ত হলে জ্ঞান ফেরানো সম্ভব হয়নি। হাসপাতালে নিতেই চলে যান কোমায়। ওই ঘটনায় চাকরিচ্যুত হন ক্লাবের প্রধান চিকিৎসক ডন ডি উইন্টার। দায়িত্বে অবহেলার অভিযোগ এনে তাকে ছাঁটাই করা হয়।




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]