ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা শুক্রবার ৫ জুন ২০২০ ২১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭
ই-পেপার শুক্রবার ৫ জুন ২০২০

অনির্দিষ্টকাল স্থগিত বাফুফে নির্বাচন
ক্রীড়া ডেস্ক
প্রকাশ: শনিবার, ২৮ মার্চ, ২০২০, ১২:০০ এএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 17



প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে এখন গোটা দেশই এক ধরনের লকডাউন। অচিরেই পরিস্থিতি স্বাভাবিক হবে, এমন লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না। এরপরও পূর্বঘোষিত ২০ এপ্রিলেই নির্বাচন আয়োজন করার জোড়জোড় চালিয়ে যাচ্ছিল বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে)। অনেকেই নির্বাচন স্থগিতের আহ্বান জানালেও তাতে কর্ণপাত করেননি কর্তাব্যক্তিরা। তাদের এমন ‘গোয়ার-গোবিন্দ’ মার্কা আচরণ ব্যাপক সমালোচনার জন্ম দিয়েছে। প্রবল চাপের মুখে এবং করোনা পরিস্থিতি দিনকে দিন নাজুক হয়ে পড়ায় অবশেষে নিজেদের অবস্থান থেকে সরে এসেছে বাফুফে। অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত করেছে নির্বাচন।
শুক্রবার ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বাফুফের বর্তমান নির্বাহী কমিটির সদস্যরা একটি জরুরি সভা করেছেন। সবার মতামতের ভিত্তিতেই নেওয়া হয়েছে নির্বাচন স্থগিতের সিদ্ধান্ত। নিজেদের এই সিদ্ধান্তের বিষয়ে দ্রুতই ফিফা আর এএফসিকে অবহিত করবে বাফুফে। ওই দুই সংস্থার সম্মতি পেলেই নির্বাচন স্থগিতের সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হবে। ৩০ এপ্রিল শেষ হয়ে যাবে বর্তমান কমিটির মেয়াদ। গঠনতন্ত্র অনুযায়ী এর মধ্যেই নতুন কমিটি গঠনে নির্বাচন করতে হবে। তাই উদ্ভূত পরিস্থিতিতে বাফুফের বর্তমান নির্বাহী কমিটি নির্বাচন স্থগিত করলেও এ বিষয়ে ফিফা আর এএফসির অনুমোদন লাগবেই।
করোনাভাইরাসের প্রকোপে দেশের মানুষের স্বাভাবিক জীবনাচার স্তব্ধ হয়ে গেলেও ২০ এপ্রিল নির্বাচন আয়োজন করার সিদ্ধান্তে বাফুফে ছিল অটল। বারবার গঠনতন্ত্রের দোহাই দিচ্ছিলেন কর্তারা। জানিয়েছিলেন, ফিফা আর এএফসির নির্দেশনা মেনেই সবকিছু করা হচ্ছে এবং হবে। কিন্তু কদিন আগে ফিফা আর এএফসি জানিয়ে দেয়, বাফুফে নির্বাচনে কোনো পর্যবেক্ষক পাঠাবে না তারা। এরপরও তোড়জোড় চলছিল। কারণ নির্বাচনের বিষয়টি বাফুফের ওপরই ছেড়ে দেওয়া হয়েছিল। সেই সুযোগটা কাজে লাগানোর চেষ্টাতেই ছিলেন বাফুফে কর্তারা।
শুক্রবারের সভার আগে বাফুফের সাধারণ সম্পাদক আবু নাইম সোহাগের স্বাক্ষর করা একটা চিঠি সদস্যদের পাঠানো হয়। আদতে ওই চিঠিটি ছিল একটি ফরম। তাতে লেখা ‘বাফুফে নির্বাচনি সাধারণ সভা ২০ এপ্রিল অনুষ্ঠিত হবে’Ñ এটার ওপর ‘হ্যাঁ/না’ মতামত দিতে হবে সদস্যদের। বিষয়টা রীতিমতো হাস্যরসের জন্ম দিয়েছে। সবকিছু মিলিয়ে তুঘলকি কাণ্ডই চলছিল বাফুফেতে। ভাবখানা এমন ছিলÑ এই নির্বাচন না হলে রসাতলে যাবে দেশের ফুটবল!
নাজুক পরিস্থিতির কারণেই হোক কিংবা প্রবল চাপের মুখে, বিলম্বে হলেও বোধদয় হয়েছে বাফুফের। শুক্রবার সভায় নির্বাচন স্থগিতের সিদ্ধান্ত হয়েছে। সভার পর বিজ্ঞপ্তি দিয়ে বাফুফে জানিয়েছে, বিশ^ স্বাস্থ্য সংস্থা কোভিড-১৯-কে মহামারী ঘোষণা করায় এবং করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে বাংলাদেশ সরকার উদ্ভূত পরিস্থিতিতে ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত সারা দেশ লকডাউন ঘোষণা করায় জনসমাবেশ নিষিদ্ধ। এ কারণে বাফুফের নির্বাহী কমিটি ২০ এপ্রিলের নির্বাচন স্থগিত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। নির্বাচন স্থগিতের পাশাপাশি আরও একটি সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাফুফে। এই নির্বাচনের কাউন্সিলরদের নাম পাঠানোর সবশেষ দিন ছিল ৩০ মার্চ। সেটি বাড়িয়ে ৭ এপ্রিল করা হয়েছে।
নির্বাচন অনির্দিষ্টকাল স্থগিতের এই সিদ্ধান্তের বিষয়ে দ্রুতই অবহিত করা হবে ফিফা আর এএফসিকে। সভা শেষে বাফুফের সাধারণ সম্পাদক আবু নাইম সোহাগ এমনটাই বলেছেন, ‘আমরা নির্বাচন পেছানোর জন্য ফিফাকে চিঠি লিখব। যতদিন পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হয় ততদিন পর্যন্ত নির্বাচন করতে চাই না। এখন দেখি ফিফা থেকে কী উত্তর পাই। আশা করি, আগামী সপ্তাহে আমরা এ ব্যাপারে একটা চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত পেয়ে যাব।’ ফিফা থেকেও নির্বাচন স্থগিতের বিষয়ে ইতিবাচক সিদ্ধান্ত আসবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। কারণ এই দুর্যোগের মধ্যে নির্বাচন আয়োজনের কোনো বাধ্যবাধকতা দেওয়ার পক্ষে নয় ফিফা।




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]