ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা বৃহস্পতিবার ২৮ মে ২০২০ ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭
ই-পেপার বৃহস্পতিবার ২৮ মে ২০২০

উত্তরা ইপিজেডে করোনা আতঙ্কে ২৩ হাজার শ্রমিক
নীলফামারী প্রতিনিধি
প্রকাশ: সোমবার, ৩০ মার্চ, ২০২০, ১১:৫৫ পিএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 13

বিশ^ মহামারী করোনাভাইরাসের আতঙ্কে ভূগছেন নীলফামারীর উত্তরা রফতানি প্রক্রিয়াকরণ এলাকা উত্তরা ইপিজেডের প্রায় ২৩ হাজার শ্রমিক। এর মধ্যে সবচেয়ে রেশি আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন চীন নিয়ন্ত্রিত চারটি কোম্পানির প্রায় ২০ হাজার শ্রমিক।
এভারগ্রিন প্রডাক্ট ফ্যাক্টরি বিডি লি., মেইজেন বিডি লি., সনিক বাংলাদেশ লি. ও ভ্যানচুরা লেদার ওয়্যার বিডি লি.-এই চার কোম্পানিতে ৪২৬ জন চায়না নাগরিক কর্মরত রয়েছে। এদের মধ্যে হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন তিনজন।
উত্তরা ইপিজেডে বিশে^র বিভিন্ন দেশের ৩১ ফ্যাক্টরির মধ্যে ১০ ফ্যাক্টরি চালু রয়েছে। শ্রমিকদের পাশাপাশি ইপিজেড এলাকার স্থানীয় বাসিন্দারাও চরম আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছে। রোববার দুপুরে সরেজমিন গেলে স্থানীয়রা জানায়, এই করোনা মহামারী প্রথম চীন দেশে শুরু হওয়ায় এবং এই ইপিজেডে চীনা নাগরিক থাকায় আমরা বেশি আতঙ্কিত।
নাম না বলা শর্তে একাধিক শ্রমিক বলেন, আমরা গরিব মানুষ, পেটের দায়ে চাকরি করছি হঠাৎ করোনা মহামারী শুরু হওয়ায় চিন্তিত। শোনা যাচ্ছে সারা বিশে^র মতো বাংলাদেশে সব কর্মস্থল বন্ধ ঘোষণা করেছে সরকার। আমরা বন্ধ চাই না, কাজ চাই। কারণ ফ্যাক্টরি বন্ধ হলে আমাদের অসহায় জীবনযাপন করতে হবে। আবার কেউ কেউ বলছেন বাইরে থাকার চেয়ে ফ্যাক্টরির ভেতরেই নিরাপদ।
এভারগ্রিন বিডি লিমিটেড ফ্যাক্টরির জেনারেল ম্যানেজার শামীম উদ্দিন জানান, ইপিজেড বাদে নীলফামারী জেলাসহ পাশর্^বর্তী দিনাজপুর জেলার চিরির বন্দরের ভূষির বন্দরে অবস্থিত সকল ফ্যাক্টরিতে মোট ১৫ হাজার শ্রমিক কর্মরত। শ্রমিকদেকে কাজে যোগদানের আগে আমাদের মেডিকেল টিম ইনফেরারের থার্মোমিটার দিয়ে পরীক্ষ-নিরীক্ষা করে কাজে যাওয়ার অনুমোতি দিচ্ছে। আর যে সব শ্রমিক একটু-আধটু জ্বরে আক্রান্ত তাদেরকে আসতে নিষেধ করে দিয়েছি।
বেপজা উত্তরা ইপিজেটের জেনারেল ম্যানেজার মোহাম্মদ এনামুল হক বলেন, বর্তমান পরিস্থিতির প্রেক্ষিতে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সব ব্যবস্থা নিয়েছি। ফ্যাক্টরি বন্ধের বিষয়ে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশ পেলে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ বিষয়ে জেলা প্রশাসক হাফিজুর রহমান চৌধুরী বলেন, ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আজ মন্ত্রিপরিষদকে অবগত করা হয়েছে। যেকোনো মুহূর্তে সিদ্ধান্ত আসবে।







সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]