ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা সোমবার ২৫ মে ২০২০ ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭
ই-পেপার সোমবার ২৫ মে ২০২০

জ্বর সর্দি কাশি ও শ্বাসকষ্টে কিশোরীসহ ৩ জনের মৃত্যু
সময়ের আলো অনলাইন
প্রকাশ: বুধবার, ১ এপ্রিল, ২০২০, ১২:০০ এএম আপডেট: ০১.০৪.২০২০ ১:৫৬ এএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 18

সিলেট, টাঙ্গাইল ও ঢাকার নবাবগঞ্জে জ্বর, সর্দি-কাশি ও শ^াসকষ্ট নিয়ে মঙ্গলবার এক কিশোরীসহ তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। আমাদের নিজস্ব প্রতিবেদক ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবরÑ
সিলেট : শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালের (সদর) কোয়ারেন্টাইনে চিকিৎসাধীন কিশোরী (১৬) মঙ্গলবার দুপুর দেড়টার দিকে মারা গেছে। তার বাড়ি সিলেট জেলার বালাগঞ্জ উপজেলায়।
দুই মাস আগে থেকেই তার জ্বর ও শ^াস কষ্ট ছিল। সিলেট বিভাগীয় কার্যালয়ের (স্বাস্থ্য) সহকারী পরিচালক (রোগ নিয়ন্ত্রণ) ডা. মো. আনিসুর রহমান সময়ের আলোকে বলেন, যেহেতু সে কোনো বিদেশির সংস্পর্শে যায়নি সে জন্য তার করোনা পরীক্ষার দরকার নেই। কিশোরীর লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হচ্ছে।
টাঙ্গাইল : জেলার মধুপুরে জ্বরে আক্রান্ত এক গার্মেন্টস কর্মী মঙ্গলবার দুপুরে মারা গেছেন। অসুস্থ হয়ে রোববার তিনি ঢাকা থেকে বাড়িতে এসেছিলেন। ওই যুবকের নাম হবিবুর রহমান হবি (৩৫)। তিনি উপজেলার মহিষ মারা ইউনিয়নের টেক্কার বাজার গ্রামের হাসেন আলীর ছেলে। মহিষ মারা ইউপি চেয়ারম্যান কাজী মোতালেব হোসেন জানান, রোববার জ্বর নিয়ে তিনি বাড়িতে এসেছিলেন। বিষয়টি তার পরিবারের লোকজন গোপন রেখেছিল। সোমবার থেকে তার পাতলা পায়খানা শুরু হয়েছিল। মঙ্গলবার রক্ত বমি হয়েছে। দুপুরে তার মৃত্যুর পরই এলাকায় ‘করোনায় আক্রান্ত’ হয়ে মারা গেছে বলে খবর ছড়িয়ে পড়ে। আশপাশের বাড়ির লোকজনও দূরে সরে যায়। টাঙ্গাইলের সিভিল সার্জন ওহিদুজ্জামান জানান, আইইডিসিআরের প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত চিকিৎসক রুবিনার নেতৃত্বে একটি দল লাশের নমুনা সংগ্রহ করার জন্য তার বাড়িতে গিয়েছিলেন। করোনা আক্রান্ত হয়েছিল কি না তা পরীক্ষার জন্য নমুনাটি ঢাকায় পাঠানো হবে। ওই দলের তত্ত্বাবধানে লাশের দাফন হয়। বাড়িটি লকডাউন করা হয়েছে।

নবাবগঞ্জ : ঢাকার নবাবগঞ্জে পান্নু মিয়া (৫৮) নামে এক রিকশাচালক মারা গেছেন। সোমবার রাত ১২টা পর রাজধানীর উত্তরা কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান বলে নবাবগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য কর্মকর্তা (টিএইচএ) ডা. শহিদুল ইসলাম মঙ্গলবার দুপুরে জানান। পান্নু মিয়া উপজেলার শোল্লা ইউনিয়নের খতিয়া মাছপাড়া গ্রামের বাসিন্দা। সে পেশায় রিকশাচালক বলে জানা গেছে। স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. শহিদুল ইসলাম জানান, পান্নু মিয়া ৬-৭ দিন ধরে ঠান্ডা কাশি সর্দি জ্বরে আক্রান্ত হয়ে পড়ে। সোমবার রাত ৮টার দিকে নবাবগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে তাকে আইসোলেশন বিভাগে ভর্তি করা হয়। কিছুক্ষণ পর তার অবস্থার অবনতি দেখে উত্তরা কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে রাত ১২টার দিকে তার মৃত্যু হয়। লাশের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য আইইডিসিআরে পাঠানো হয়েছে। করোনাভাইরাসে তার মৃত্যু হয়েছে কি না পরীক্ষার পর নিশ্চিত হওয়া যাবে। ডা. শহিদুল ইসলাম আরও বলেন, তার স্বজনদের কাছ থেকে তিনি জানতে পারেন পাশের বাড়ির একজন ইতালি থেকে বাড়ি ফিরেছেন।




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]