ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা বৃহস্পতিবার ২৮ মে ২০২০ ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭
ই-পেপার বৃহস্পতিবার ২৮ মে ২০২০

প্রতিবন্ধী, বিধবা ও বয়স্ক ভাতা
করোনা : গৌরীপুরে গ্রামে ভাতার টাকা পৌঁছে দিচ্ছে কৃষি ব্যাংক
গৌরীপুর (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি
প্রকাশ: সোমবার, ২০ এপ্রিল, ২০২০, ৪:১৫ পিএম আপডেট: ২০.০৪.২০২০ ৪:১৮ পিএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 283

করোনা পরিস্থিতিতে ঘরবন্দী হয়ে পড়েছে ময়মনসিংহের গৌরীপুরবাসী। সংক্রমণ রোধে প্রশাসনের পক্ষ থেকে ঘোষণা করা হয়েছে সেলফ লকডাউন। এমন অবস্থায় করোনা রোধ ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে দুস্থদের ভাতার টাকা গ্রামে গ্রামে পৌঁছে দিতে ব্যাংকগুলোর প্রতি আহ্বান জানিয়ে ফেসবুকে লাইভে দাবি জানিয়েছিলো স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন 'পরিচ্ছন্ন গৌরীপুর'।

সংকটময় মুহূর্তে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের দাবিটি জনগুরুত্বপূর্ণ ও যৌক্তিক মনে করে তাতে সাড়া দেয় ময়মনসিংহের গৌরীপুর শাখা কৃষি ব্যাংক। পরে ব্যাংক কর্তৃপক্ষের উদ্যোগে জনপ্রতিনিধিদের সাথে নিয়ে দুস্থদের ভাতার টাকা গ্রামে গ্রামে গিয়ে হাতে হাতে পৌঁছে দেয়ার উদ্যোগ নেয়া হয়।

কৃষি ব্যাংকের ব্যবস্থাপক নূরে শামস বলেন, করোনা পরিস্থিতিতে প্রশাসন যেভাবে মানুষের বাড়ি বাড়ি সাহায্য পোঁছে দিচ্ছে। সংকটময় এই মুহূর্তে আমরাও সামজিক দূরত্ব বজায় রাখতে গ্রামে গ্রামে গিয়ে ৪৯৪২ জন উপকার ভোগীদের ভাতার টাকা তাদের হাতে তুলে দিচ্ছি।

জানা গেছে উপজেলার অচিন্তপুর, মাওহা ও সহনাটি এই তিন ইউনিয়নের প্রতিবন্ধী, বয়স্ক ও বিধবা ভাতার টাকা গৌরীপুর কৃষি ব্যাংক থেকে বিতরণ করা হয়। তিনটি ইউনিয়নের উপকারভোগীর সংখ্যা যথাক্রমে বিধবা ভাতা ৮৪৬, বয়স্ক ভাতা ২৯১৪ ও প্রতিবন্ধী ভাতা ১১৮২ জন।

সোমবার দুপুরে কৃষি ব্যাংকের উদ্যোগে জনপ্রতিনিধিদের সাথে নিয়ে সহনাটি ইউনিয়নের গ্রামে গ্রামে গিয়ে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে উপকারভোগীদের মাঝে ভাতার টাকা বিতরণ করা হয়। গ্রামের বাড়ি বসেই ভাতার টাকা হাতে পেয়ে দুস্থ উপকারভোগীদের মুখে হাসি ফুটে ওঠে।

কৃষি ব্যাংকের অফিসার সাঈদ হাসান মিথুন বলেন, পরিচ্ছন্ন গৌরীপুরের লাইভ ভিডিওটি ব্যাংক ব্যবস্থাপকের নজরে আনলে তিনি উর্ধ্বতনদের সাথে কথা বলে দুস্থদের ভাতার টাকা গ্রামে পৌঁছে দেয়ার উদ্যোগ নেন। ফলে লকডাউন পরিস্থিতিতে ঘরে বসেই টাকা পাচ্ছে দুস্থরা।

সহনাটি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ায়ম্যান আব্দুল মান্নান বলেন, করোনা ভাইরাস পরিস্থিতিতে উপকারভোগীরা ব্যাংকে এসে ভিড় করলে করোনা সংক্রমণ ঝুঁকি বেড়ে যেতে পারে। তাই করোনা রোধে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ব্যাংক কর্মকর্তারা গ্রামে এসে উপকারভোগীদের হাতে টাকা তুলে দিচ্ছেন। আমাদের দাবি এই সেবা কার্যক্রম বন্ধ না করে যেন সবসময় চালু রাখা হয়।  করোনা রোধে অন্যান্য ব্যাংকগুলোও যেনো এই নীতি  অনুসরণ করে।

প্রসঙ্গত, গৌরীপুর উপজেলার একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন 'পরিচ্ছন্ন গৌরীপুর'।  গত ১৪ এপ্রিল পহেলা বৈশাখ সংগঠনটির একটি লাইভ অনুষ্ঠান থেকে করোনা পরিস্থিতিতে বিধবা, বয়স্ক, প্রতিবন্ধী ও মাতৃত্ব ভাতার উপকারভোগীদের ভাতার টাকা গ্রামে গ্রামে পৌঁছে দিতে ব্যাংক কর্তৃপক্ষের কাছে দাবি জানানো হয়।




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]