ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা রোববার ৩১ মে ২০২০ ১৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭
ই-পেপার রোববার ৩১ মে ২০২০

বাচ্চা হাঙরের স্যুপ খুবই পছন্দ কিম জং উনের!
সময়ের আলো ডেস্ক
প্রকাশ: শুক্রবার, ২২ মে, ২০২০, ১২:০০ এএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 6

অজ্ঞাতবাস কাটিয়ে ফিরলেও বিতর্ক পিছু ছাড়ছে না উত্তর কোরিয়ার দাপুটে শাসক কিম জং উনের। কখনও পরমাণু বিতর্ক, কখনও বা একাধিক স্বৈরাচারী সিদ্ধান্তÑ ঘুরেফিরে খবরেই থেকে গিয়েছেন কিম। এমনকি ডামি দাবির জেরে সোশ্যাল মিডিয়ায় ফের মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে ‘মৃত্যুশয্যায় কিম’ জল্পনা। আর এর মধ্যেই আলোচনায় কিম জং উনের ডায়েট। ইন্ডিয়া টাইমস।
উত্তর কোরিয়ার প্রাক্তন সরকারি শেফ (রাঁধুনি) কেঞ্জি ফুজিমোতোকে উদ্ধৃত করে কিমের ডায়েট সম্পর্কে তথ্য দিয়েছে এক আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম। যা অনুযায়ী, দামি ওয়াইন পানের শখ রয়েছে কিমের। এছাড়াও চিজ খেতে খুবই ভালোবাসেন উত্তর কোরিয়ার শাসক। ফুজিমোতোর এক পুরনো সাক্ষাৎকার অনুযায়ী, চমক অন্যত্র! বাচ্চা হাঙরের স্যুপ নাকি খুবই পছন্দ কিম জং উনের এবং প্রায়ই নিজের শেফ-টিমের কাছে ‘স্যুপের আবদার’ও করে থাকেন ৩৬ বছরের রাষ্ট্রনেতা।
রাষ্ট্রপুঞ্জের রিপোর্ট অনুযায়ী, খাদ্য সঙ্কট রয়েছে উত্তর কোরিয়ায়। অপুষ্টির শিকার সে দেশের শিশুরা। এমতাবস্থায় খাদ্যরসিক শাসকের ভোজন-বাজেট পিয়ংইয়ংয়ের কাছে কোনো ‘বোঝার’ থেকে কম নয় বলে সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত।
প্রসঙ্গত এটা অজানা নয়, অত্যধিক ধূমপান, স্থূলতাসহ বেশ কিছু সমস্যা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই ভুগছিলেন কিম। আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলোতে দাবি, এর জেরেই হৃদযন্ত্রে অস্ত্রোপচার এবং তারপর থেকেই গুরুতর অসুস্থ ছিলেন কিম জং উন। যদিও কিমের অস্ত্রোপচার সম্পর্কিত দাবি সত্যি না মিথ্যা, তা নিয়ে কোনো বিবৃতি আসেনি পিয়ংইয়ং থেকে। তবে মার্কিন ওষুধ সংস্থা ‘জনস হপকিন্স’-এর তরফে দাবি, কিমের যে ধরনের স্থূলতা রয়েছে, তাতে হৃদযন্ত্রে অস্ত্রোপচার স্বাভাবিক।
দীর্ঘ অজ্ঞাতবাসের পর গত ১ মে সব কৌতূহলের অবসান ঘটিয়ে সর্বসমক্ষে আসেন কিম জং উন। রাজধানী পিয়ংইয়ংয়ের কাছে সানচনে একটি সার কারখানার ফিতে কাটতে দেখা গিয়েছিল তাকে।




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]