ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা বৃহস্পতিবার ৯ জুলাই ২০২০ ২৫ আষাঢ় ১৪২৭
ই-পেপার বৃহস্পতিবার ৯ জুলাই ২০২০

ভারতে পঙ্গপালের তাণ্ডব
সময়ের আলো অনলাইন
প্রকাশ: মঙ্গলবার, ২৬ মে, ২০২০, ২:৩৫ পিএম আপডেট: ২৬.০৫.২০২০ ২:৩৮ পিএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 315

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের মধ্যে আরেক বিপদ এসে হাজির ভারতে। পঙ্গপাল ক্ষতি করছে একের পর এক ফসলি জমি। ফসল হারিয়ে দিশেহারা কৃষক। একবার প্রবেশ করলে ক্ষেতের পর ক্ষেতে অবলীলায় ধ্বংসযজ্ঞ চালায় এই ছোট্ট পতঙ্গের দল। নতুন বিপদ ভাবাচ্ছে মহারাষ্ট্র সরকারকে। চিন্তায় মাথায় হাত কৃষকদেরও। 

সংবাদ প্রতিদিন জানায়, জয়পুর, মধ্যপ্রদেশ, উত্তরপ্রদেশে তাণ্ডব চালিয়ে পঙ্গপালের দল হানা দিয়েছে মহারাষ্ট্রে।

এসব পঙ্গপাল অনায়াসেই হামলা চালাতে পৌঁছে যাচ্ছে একের পর এক রাজ্যে। হাওয়ার অভিমুখে ক্ষতি করছে একের পর এক ফসলি জমি। ফলে ক্রমেই আশঙ্কার কালো মেঘ ঘনাচ্ছে কৃষকদের মুখে।

জানা গেছে, রাজস্থানের পর এই পঙ্গপালের দল হামলা চালিয়েছে উত্তরপ্রদেশ থেকে মধ্যপ্রদেশ। এবার ঢুকে পড়েছে মহারাষ্ট্রে। এই রাজ্যের বিদর্ভ জেলাসহ বাকি চারটি জেলাতে হামলা চালাতে পারে পঙ্গপালের দল।

রাজ্যের যুগ্ম কৃষি কর্মকর্তা রবীন্দ্র ভোঁসলে বলেন, ‘অমরাবতী জেলা হয়ে এই রাজ্যে প্রবেশ করে। পরে পঙ্গপালের দল ওয়ারধা ও নাগপুরে প্রবেশ করে হামলা চালাবে।’

তিনি বলেন, ‘কেন্দ্রের পক্ষ থেকে একটি দল বারংবার আমাদের পতঙ্গের গতিবিধি সম্পর্কে জানাচ্ছে। আমরা সেই তথ্য গ্রামের কৃষকদের কাছে পৌঁছে দিয়ে তাদের সতর্ক করার চেষ্টা করছি। শুধু রবি শস্য ন, সব ধরনের ফসলের জন্য এই পতঙ্গ অত্যন্ত ক্ষতিকর।’

পঙ্গপাল নিয়ে রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে আগাম সতর্কতা জারি করা হয়েছে জেলাগুলোতে। ক্ষেতে ও ফসলের মধ্যে রাসায়নিক স্প্রে করার জন্য একটি বিশেষ দলেরও ব্যবস্থা করা হয়েছে।

অনেক সময় ক্ষেতে দাতবল বাসনের শব্দ করে পতঙ্গের দলকে তাড়ানোর চেষ্টা চলছে। আপাতত জেলা প্রশাসকের তত্ত্বাবধানে জালালখেদায় রাস্তার ধারে রাসায়নিক স্প্রে করানো হচ্ছে। কারণ এই রাস্তার পাশেই নয়া আস্তানা তৈরি করেছে পঙ্গপাল।

/এইচ




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]