ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা শনিবার ১১ জুলাই ২০২০ ২৭ আষাঢ় ১৪২৭
ই-পেপার শনিবার ১১ জুলাই ২০২০

পরকিয়ার অভিযোগে বিয়ের পিঁড়িতে উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান
মেহেরপুর প্রতিনিধি
প্রকাশ: মঙ্গলবার, ২৬ মে, ২০২০, ৭:০১ পিএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 814

মেহেরপুরের গাংনীতে স্বামী মারা যাওয়ার ১০৬ দিনের মাথায় পরকিয়ার অভিযোগ মাথায় নিয়ে বিয়ের পিঁড়িতে বসলেন গাংনী উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ফারহানা ইয়াসমিন। সদর উপজেলার শোলমারী গ্রামের যুবক ও এক কন্যা সন্তানের জনক গোলাম সরোয়ার সবুজের সাথে তিনি বিয়েবন্ধনে আবদ্ধ হলেন।

মঙ্গলবার দুপুরে পৌরসভাধীন চৌগাছায় ভাইস চেয়ারম্যানের বাসভবনে ২০ লাখ টাকা দেনমোহরে বিয়ে সম্পন্ন হয়েছে।

এক কন্যা সন্তানের জননী ফারহানা ইয়াসমিনের স্বামী শাহাবুদ্দিন মৃত্যুবরণ করলে তিনি একমাত্র মেয়েকে নিয়ে ঐ ভাড়া বাড়িতেই বসবাস করছিলেন।

মঙ্গলবার সকালে প্রায় যাওয়া আসা করা ওই যুবক গোলাম সরোয়ার সবুজ মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানের বাড়িতে আসেন। এ সময় স্থানীয় কয়েকজন যুবক ফারহানা ইয়াসমিনকে ওই বাড়িতে আটকে রাখে।

ভাইস চেয়ারম্যানের চেয়ে দশ বছরের ছোট ঐ যুবকের সাথে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানের অনৈতিক সর্ম্পকের দাবি করে তার বাড়িতেই আটকে রাখা হয়।

কিন্তু অভিযোগ অস্বীকার করে পূর্বপরিকল্পিতভাবে সম্মানহানি করার জন্য সাধারণ বিষয়টি জটিল করা হচ্ছে বলে দাবি করেন মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ফারহানা ইয়াসমিন। কয়েকজন মারধর করে তাদেরকে ঘরে তালাবন্দি করেছে বলেও বিচারের দাবি করেন তিনি।

অপর দিকে খবর পেয়ে মেহেরপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও গাংনী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এমএ খালেক, গাংনী পৌর মেয়র আশরাফুল ইসলাম ও গাংনী থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ওবায়দুর রহমান ফারহানা ইয়াসমিন এর বাড়িতে যান।

এ সময় তারা ওই যুবক এবং ফারহানা ইয়াসমিনের সাথে পৃথক পৃথকভাবে কথা বলে বিস্তরিত ও প্রকৃত ঘটনা উদঘাটনের চেষ্টা করেন।

এদিকে বিষয়টি অল্প সময়ে জানাজানি হলে বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষের মাঝে স্বামীর মৃত্যু ও তার পরকিয়া মুখোরোচক সমালোচনার সৃষ্টি হয়। মেহেরপুর জেলা জুড়েই হৈচৈ পড়ে যায়।

শেষ পর্যন্ত দুপুরে ২০ লাখ টাকা দেনমোহরে বিয়ে সম্পন্ন হয় ফারহানা ইয়াসমিন ও গোলাম সরোয়ার সবুজের।

বিয়ের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এমএ খালেক ও পৌর মেয়র আশরাফুল ইসলামসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

তাদের বিয়ের বিষয়টি উদ্ভূত্ব পরিস্থিতিতে সামাজিক সমাধান বলে সাংবাদিকদের জানান এম এ খালেক। গাংনী পৌর মেয়র আশরাফুল ইসলাম বলেন, উভয়ের সম্মতিতে সামাজিকভাবে বিয়ে দেওয়া হয়েছে।




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]