ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা মঙ্গলবার ১৪ জুলাই ২০২০ ৩০ আষাঢ় ১৪২৭
ই-পেপার মঙ্গলবার ১৪ জুলাই ২০২০

জৈন্তাপুরে বাঘডাশসহ ৯ প্রাণী হত্যা : পুলিশ ও বনবিভাগের ঘটনাস্থল পরিদর্শন, মামলা দায়ের
হৃদয় দেবনাথ, সিলেট থেকে ফিরে
প্রকাশ: শনিবার, ৩০ মে, ২০২০, ৮:৪৬ পিএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 636

সিলেটের জৈন্তাপুর উপজেলার ফতেহপুর ইউনিয়নের বালিপাড়া গ্রামে অন্তত ছয়টি শেয়াল, দুইটি বাঘডাশ ও একটি বেজিকে নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যা করেছে স্থানীয়রা।

গত শুক্রবার ওই এলাকার টিলায় বসবাসরত এ সব বন্য প্রাণীকে স্থানীয়রা হত্যা করেছে বলে জানিয়েছেন সিলেটের প্রাণী অধিকার ও পরিবেশ কর্মীরা।

বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) সিলেট এর সাধারণ সম্পাদক আব্দুল করিম কিম বলেন,বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়ে প্রশাসন এবং বনবিভাগ যেভাবে কাজ করেছে তাদের ধন্যবাদ জানাচ্ছি’।

পাশাপাশি সোশ্যাল মিডিয়াতে বন্যপ্রাণীগুলো হত্যার পর যেভাবে প্রতিবাদের ঝড় ওঠেছে তাতেই। সোশ্যাল মিডিয়াতে এ বিষয়টি নিয়ে যারা প্রতিবাদের ঝড় তুলেছেন তাদের প্রত্যেককেই ধন্যবাদ জানান তিনি।

তিনি বলেন, এই প্রতিবাদেই প্রতীয়মান হয় যে মানুষ অনেকটাই সচেতন হয়েছে। তবে গ্রাম এলাকাগুলোতে এখনো তেমন সচেতনতা তৈরি হয়নি বলেও দুঃখ প্রকাশ করেন তিনি।

নিহত এ সব বন্যপ্রাণীর ছবি ফেসবুকে প্রকাশ করে বন্য প্রাণী ও পরিবেশ বিষয়ক সাংবাদিক হোসেন সোহেল লিখেছেন, ‘এটা কেমন নিষ্ঠুর নির্মমতা...বনবিভাগের বন্যপ্রাণী আইনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই। তা না হলে বন্যপ্রাণী আইনের প্রতি অনেকের সম্মান ও শ্রদ্ধা হারিয়ে যেতে পারে এবং পরবর্তীতে এমন ঘটনা ঘটতেই থাকবে।’

ফতেহপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুর রশীদ বলেন, এমন জঘন্য অপরাধ কোনোভাবেই মেনে নেয়া যায় না। এ নির্মম হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে বন বিভাগের পক্ষ থেকে মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে এবং আমাকে অবহিত করেছেন, তাই বিষয়টি আমিও গুরুত্ব দিয়ে দেখছি।’

সিলেটের উপ-বন সংরক্ষক ও বিভাগীয় বন কর্মকর্তা এসএম সাজ্জাদ হোসেন বলেন, ‘তারা এমন নির্মমভাবে প্রাণীগুলোকে হত্যা করেছে তা ভাষায় প্রকাশ করার মতো নয়।’

আমাদের বনবিভাগের পক্ষ থেকে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।’দ্রুতই প্রত্যেককে গ্রেফতার করে বিচারের মুখোমুখি করা হবে।’

জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণ ফাউন্ডেশন এর সভাপতি হৃদয় দেবনাথ ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে বন্যপ্রাণী আইনের কঠোর প্রয়োগের দাবি জানিয়ে বলেন, ‘আইনের সঠিক প্রয়োগ না হওয়ায় এবং সচেতনতার অভাবে বন্য প্রাণী হত্যা বেড়ে চলছে’।’তাই এ বন্যপ্রাণী আইনের কঠোর প্রয়োগের দাবি জানান তিনি।

শনিবার সকালে প্রাণ-প্রকৃতি সংরক্ষণ কর্মকর্তা ফরেস্ট রেঞ্জার মোনায়েম হোসেন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে জানান, জড়িতদের বিরুদ্ধে আজই প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে ।

তিনি বলেন,এলাকাবাসীর সাথে কথা বলে ইতোমধ্যে বন্যপ্রাণী হত্যাকারীদের শনাক্ত করা হয়েছে। সেই সাথে বন বিভাগ কর্তৃক বন্যপ্রাণী/সংরক্ষণ ও নিরাপত্তা আইন ২০১২ আইনে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে বন আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে ।

এ বিষয়ে জৈন্তাপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি শ্যামল বণিক জানান, বন বিভাগসহ আমরা পুলিশ প্রশাসন ইতোমধ্যে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। এ জঘন্য অপরাধের সাথে সম্পৃক্তদের বিরুদ্ধে বন্যপ্রাণী/সংরক্ষণ ও নিরাপত্তা আইন ২০১২ আইনে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে বন আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে।




এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]