ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা বৃহস্পতিবার ১ অক্টোবর ২০২০ ১৬ আশ্বিন ১৪২৭
ই-পেপার বৃহস্পতিবার ১ অক্টোবর ২০২০

দৌলতদিয়া ও শিমুলিয়া ঘাটে  গাদাগাদি করে ফেরিতে পার
মুন্সীগঞ্জ ও গোয়ালন্দ (রাজবাড়ী) প্রতিনিধি
প্রকাশ: রোববার, ৩১ মে, ২০২০, ১১:০৫ পিএম আপডেট: ৩১.০৫.২০২০ ১:০৩ এএম | প্রিন্ট সংস্করণ  Count : 23

ঈদের ছুটি শেষে করোনা উপেক্ষা করে দৌলতদিয়া ও শিমুলিয়ায় যাত্রীসহ ব্যক্তিগত গাড়ির চাপ বাড়তে শুরু করেছে। হাজার হাজার যাত্রী নিয়ে ঘাটে ভিড়ছে ফেরি। সেখানে মানা হচ্ছে না কোনো সামাজিক দূরত্ব। শনিবার ভোর থেকেই এ চিত্র দেখা যায় উভয় ঘাটে।
দৌলতদিয়া : শনিবার সকাল থেকে দৌলতদিয়া ফেরি এলাকায় কর্মস্থলে যোগ দিতে ঘাট দিয়ে ঢাকামুখী হাজার হাজার যাত্রী লক্ষ করা যায়। বেলা বাড়ার সাথে সাথে যাত্রী ও যানবাহনের চাপও বাড়তে থাকে। ফেরিতে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতে পুলিশ দায়িত্ব পালন করলেও যাত্রীরা তা মানছে না। এদিকে যাত্রীদের পাশাপাশি ফেরিঘাটে ব্যক্তিগত মাইক্রোবাস ও প্রাইভেটকারের  চাপ রয়েছে। এ ছাড়া অনেকেকে মোটরসাইকেল নিয়ে ঢাকামুখী হতে দেখা গেছে। সড়কে গণপরিবহন না থাকায় স্বাভাবিক সময়ের চেয়ে কয়েকগুণ বেশি ভাড়া দিয়ে মাইক্রোবাস, প্রাইভেটকার, মোটরসাইকেল, মাহেন্দ্রা, অটোরিকশাসহ বিভিন্ন মাধ্যমে দৌলতদিয়া ঘাটে এসে নদী পার হচ্ছে যাত্রীরা। বিআইডব্লিউটিসি দৌলতদিয়া ঘাট সহকারী ব্যবস্থাপক মাহবুব হোসেন জানান, বর্তমানে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে ছোট বড় ৭টি ফেরি চলাচল করছে। যাত্রী ও যানবাহনের চাপ বাড়লে ফেরির সংখ্যাও বাড়ানো হবে।
শিমুলিয়া : শনিবার ভোর থেকেই ফেরিতে গাদাগাদি করে পদ্মা পাড়ি দিয়ে শিমুলিয়া ঘাটপ্রান্তে আসতে শুরু করে যাত্রীরা। সকাল থেকেই পদ্মা কিছুটা উত্তাল, প্রচুর বাতাস রয়েছে। এ রুটে সকাল থেকে ১৫টি ফেরি দিয়ে সার্ভিস সচল রাখা হয়েছে। কাঁঠালবাড়ী থেকে ফেরিগুলো কানায় কানায় পূর্ণ করে হাজার হাজার লোক শিমুলিয়ায় আসছে। অন্যদিকে গণপরিবহন বন্ধ থাকায় ঘাটে এসেও ভোগান্তির শেষ নেই যাত্রীদের। হাতে ব্যাগ ও সন্তানকে কোলে করে হেটে রওয়ানা দিয়েছে অনেকেই। এ ছাড়া গাদাগাদি করে ৪-৫ গুণ বেশি ভাড়ায় সিএনজি, অটো, মোটরসাইকেল, পিকআপ, ট্রাক, ছোটগাড়ি কিংবা মাইক্রোবাস ভাড়া করে গন্তব্যে রওনা দিয়েছে যাত্রীরা। বিআইডব্লিউটিসির ম্যানেজার সাফায়েত হোসেন বলেন, ১৫টি ফেরি দিয়ে যাত্রী ও যান পার করা হচ্ছে। যাত্রীরা সামাজিক দূরত্ব ও ব্যক্তিগত সুরক্ষা কোনোটাই মানছে না। যেন কার আগে কে ফেরিতে উঠবে এই প্রতিযোগিতায় ব্যস্ত।






সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, নির্বাহী সম্পাদক : শাহনেওয়াজ দুলাল, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড-এর পক্ষে
প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ। নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]