ই-পেপার মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪
মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪

রাশিয়াকে কড়া বার্তা দেবে ইউরোপ
প্রকাশ: বুধবার, ৩১ মে, ২০২৩, ৭:৫০ এএম  (ভিজিট : ১৮৪)
টানা তিন রাত ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভে ক্ষেপণাস্ত্র ও ড্রোন হামলার পর মঙ্গলবার সকালে মস্কোকে লক্ষ্য করে ড্রোন হামলা হয়েছে। রুশ প্রেসিডেন্ট পুতিন এ হামলায় ইউক্রেনকে দুষছেন। 

কিয়েভের বিরুদ্ধে বেসামরিকদের লক্ষ্যবস্তু করার অভিযোগ এনেছেন তিনি। তবে ইউক্রেন হামলায় নিজেদের সংশ্লিষ্টতা অস্বীকার করা হয়েছে। এদিকে ইউরোপের প্রায় ৪৭টি দেশের শীর্ষনেতা মলদোভায় মিলিত হয়ে রাশিয়ার বিরুদ্ধে নিজেদের সংহতির কড়া বার্তা দেবেন বলে জানা গেছে। আর রুশ মিত্র ইরানের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞার অনুমোদন দিয়েছে ইউক্রেনের পার্লামেন্ট।

মস্কোতে ড্রোন হামলা : শনিবার থেকে পরপর টানা তিন রাত ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভে বোমাবর্ষণ করেছে রাশিয়া। এরপর গতকাল মঙ্গলবার মস্কোতে ড্রোন হামলা হয়। হামলায় কয়েকটি ভবনের সামান্য ক্ষতি হলেও কেউ নিহত বা গুরুতর আহত হয়নি বলে দাবি করেছেন রাশিয়ার কর্মকর্তারা। বিমান প্রতিরক্ষা ব্যবস্থাপনা রাশিয়ার রাজধানীর দিকে এগিয়ে আসা বেশিরভাগ ড্রোনকেই ভূপাতিত করতে সক্ষম হয়েছে বলেও দাবি তাদের। 

মঙ্গলবার মেসেজিং চ্যানেল টেলিগ্রামে মস্কোর মেয়র সের্গেই সোবিয়ানিন বলেন, ‘শহরের সব জরুরি পরিষেবাগুলো ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে’। ক্ষতিগ্রস্ত ভবনগুলো থেকে বাসিন্দাদের একাংশকে অন্যত্র সরিয়ে নেওয়া হয়েছে বলেও জানান তিনি। ‘এখন পর্যন্ত কারও গুরুতর আহত হওয়ার খবর পাওয়া যায়নি। দুজনের চিকিৎসা লেগেছে। কাউকেই হাসপাতালে ভর্তি করতে হয়নি। ঘটনাস্থলেই প্রয়োজনীয় চিকিৎসাসেবা দেওয়া হয়েছে।’ বলেন সোবিয়ানিন। 

 অবশ্য এই খবর লেখা পর্যন্ত কোনো আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম অথবা বার্তা সংস্থা তাৎক্ষণিকভাবে এসব ভাষ্যের সত্যতা যাচাই করতে পারেনি।
এদিকে শহরের গভর্নর আন্দ্রেই ভরোবিয়ভ টেলিগ্রামে বলেন, মস্কোর দিকে ধেয়ে আসা একাধিক ড্রোনকে ভূপাতিত করা হয়েছে। আজ সকালে কিয়েভের ক্ষমতাসীনরা মস্কোকে লক্ষ্য করে সন্ত্রাসী ড্রোন হামলা চালিয়েছে। তিনটি ড্রোন ইলেকট্রনিক ওয়ারফেয়ারে আটকা পড়ে নিয়ন্ত্রণ হারায়। যেখানে হামলার লক্ষ্য ছিল, তার বাইরে গিয়ে পড়েছে ড্রোনগুলো। মস্কো অঞ্চলে আরও ৫টি ড্রোনকে পান্তসির-এস ভূমি থেকে আকাশে নিক্ষেপযোগ্য ক্ষেপণাস্ত্রের মাধ্যমে ভূপাতিত করা হয়েছে,’ বলেছে রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়।

ইউক্রেনকে দুষছে রাশিয়া, সংশ্লিষ্টতা অস্বীকার কিয়েভের : মঙ্গলবারের হামলায় ইউক্রেনকে দুষছে রাশিয়া। রুশ প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিন বলেছেন, ইউক্রেনের সামরিক গোয়েন্দা অধিদফতরে হামলার প্রতিক্রিয়াতেই মস্কোতে হামলা চালানো হয়েছে। সেখানে বেসামরিকদের লক্ষ্যবস্তু বানানো হয়েছে। তবে হামলায় জড়িত থাকার অভিযোগ অস্বীকার করেছে ইউক্রেন। ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির উপদেষ্টা মিখাইলো পোদোলিয়াক এক টেলিভিশন অনুষ্ঠানে এক প্রশ্নের জবাবে মস্কোয় ড্রোন হামলার অভিযোগ অস্বীকার করেন। তিনি বলেন, ‘আমরা এই হামলার সঙ্গে কোনোভাবেই জড়িত নই।’

প্রসঙ্গত, মস্কোর অবস্থান ইউক্রেন থেকে এক হাজারের বেশি কিলোমিটার দূরে। রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর মস্কোয় ড্রোন হামলার ঘটনা বিরল। তবে রাশিয়ার অন্যান্য অংশে প্রায় নিয়মিতই ড্রোন হামলা হয়ে থাকে।

রাশিয়াকে কড়া বার্তা দেবে ইউরোপ : ইউরোপীয় ইউনিয়নসহ প্রায় ৪৭টি দেশের শীর্ষ নেতা মলদোভায় মিলিত হয়ে কৌশলগত হুমকি নিয়ে আলোচনা করবেন বলে জানিয়েছে জার্মান সংবাদমাধ্যম ডয়চে ভেলে। ওই সংবাদমাধ্যম বলছে, মলদোভা ও ইউক্রেনের প্রতি তাদের সংহতির বার্তাও মস্কোর জন্য স্বস্তির হবে না। 

বাস্তবে ইউক্রেনসহ রাশিয়ার সীমান্তের কাছের একাধিক দেশ বেশ কয়েক বছর ধরে ইইউ ও ন্যাটোর কাছে ‘অবহেলিত’ থেকেছে। এই দুই জোটে যোগদানের কোনো সত্যিকারের সম্ভাবনার আশ্বাস পায়নি ইউক্রেন, জর্জিয়া, মলদোভা ইত্যাদি দেশ। ইউক্রেনে রাশিয়ার হামলা সেই বাস্তবতা বদলে দিচ্ছে। বহু বছরের ‘অবহেলা’ ঝেরে ফেলে পশ্চিমা বিশ্ব এবার সত্যি রাশিয়ার থাবা থেকে প্রতিবেশিকে মুক্ত রাখতে দ্রুত অগ্রসর হচ্ছে। মলদোভার রাজধানী চিসিনাউয়ের উপকণ্ঠে আগামী বৃহস্পতিবার ইউরোপের প্রায় ৪৭টি দেশের শীর্ষনেতা মিলিত হয়ে রাশিয়াকে সেই বার্তা দিতে চলেছেন।

রাশিয়ার আগ্রাসনের মুখে ইউক্রেন ও মলদোভা ইউরোপীয় ইউনিয়নে যোগদানের প্রার্থী হিসেবে আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতি পেয়েছে। রাশিয়ার হামলা না ঘটলে সেই স্বীকৃতি পেতে আরও বিলম্ব হতো, সে বিষয়ে কোনো সন্দেহ নেই। অবশ্য ইইউতে পৌঁছানোর পথে দুই দেশের সামনে এখনও অনেক বাধা রয়েছে, সে বিষয়ে সন্দেহ নেই। মলদোভায় ইপিসি সম্মেলনে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কিও সশরীরে উপস্থিত থাকতে পারেন।

ইরানের বিরুদ্ধে ইউক্রেনের নিষেধাজ্ঞা : রাশিয়ার মিত্র ইরানের বিরুদ্ধে সোমবার একটি নিষেধাজ্ঞা প্যাকেজ অনুমোদন করেছে ইউক্রেনের পার্লামেন্ট। এক বছরের বেশি সময় ধরে ইউক্রেনে সামরিক আগ্রাসন চালিয়ে আসছে রাশিয়া। এই আগ্রাসনের মধ্যে মস্কোকে তেহরানের অস্ত্র দেওয়ার অভিযোগে এই পদক্ষেপ নিল কিয়েভ।





https://www.shomoyeralo.com/ad/1698385080Google-News-Update.jpg

সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫ | ই-মেইল : shomoyeralo@gmail.com
close