ই-পেপার বিজ্ঞাপনের তালিকা বৃহস্পতিবার ২১ অক্টোবর ২০২১ ৬ কার্তিক ১৪২৮
ই-পেপার বৃহস্পতিবার ২১ অক্টোবর ২০২১
http://www.shomoyeralo.com/ad/amg-728x90.jpg

এডিবির সংশোধিত পূর্বাভাস
প্রবৃদ্ধি হতে পারে ৬.৮ শতাংশ
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ২:৩২ এএম | অনলাইন সংস্করণ  Count : 70

করোনা মহামারির উদ্বেগের পরিপ্রেক্ষিতে ২০২১-২২ অর্থবছরে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির হার ৬ দশমিক ৮ শতাংশ হতে পারে বলে নতুন করে পূর্বাভাস দিয়েছে এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক (এডিবি)। সম্প্রতি এডিবির অর্থনৈতিক প্রকাশনা এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট আউটলুকের (এডিও) এক প্রতিবেদনে সংশোধিত এ তথ্য তুলে ধরা হয়।

এর আগে দেশের প্রবৃদ্ধি ৭ দশমিক ২ শতাংশ হতে পারে বলে চলতি বছরের এপ্রিলে পূর্বাভাস দিয়েছিল সংস্থাটি। এদিকে বাংলাদেশ সরকার চলতি অর্থবছরে প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে ৭ দশমিক ২ শতাংশ।

শুধু বাংলাদেশ নয়, করোনা মহামারির প্রেক্ষাপটে এশিয়ার উন্নয়নশীল দেশগুলোর ২০২১ সালের সামগ্রিক অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির হার কমিয়ে দেখানো হয়েছে এডিবির প্রতিবেদনে। এডিওর পূর্বাভাস অনুযায়ী, চলতি অর্থবছরে এশিয়ার উন্নয়নশীল দেশগুলোর অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি দাঁড়াবে ৭ দশমিক ১ শতাংশ।

এডিবি চলতি বছরের জন্য ৫ দশমিক ৫ শতাংশ প্রবৃদ্ধির পূর্বাভাস দিয়েছে। যদিও এর আগে এপ্রিলের প্রতিবেদনে ৬ দশমিক ৮ শতাংশ প্রবৃদ্ধির আশা করেছিল সংস্থাটি। ২০২১ এবং ২০২২ সালে এশিয়ার অর্থনৈতিক সম্ভাবনা অনেকাংশেই নির্ভর করছে মহামারি মোকাবিলা এবং টিকাদান কর্মসূচির উন্নয়নের ওপর। 

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রফতানি পুনরুদ্ধারের মাধ্যমে ২০২২ সালে এ অঞ্চলের প্রবৃদ্ধি উন্নীত হতে পারে ৫ দশমিক ৪ শতাংশে। তবে গত এপ্রিলে ৭ দশমিক ৩ শতাংশের পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছিল। এদিকে প্রতিবেদনে ২০২২ সালের প্রবৃদ্ধির পূর্বাভাস ৫ দশমিক ৩ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ৫ দশমিক ৪ শতাংশ করা হয়েছে। এ ছাড়া মূল্যের চাপ নিয়ন্ত্রণে থাকবে বলেও আশা করছে সংস্থাটি।

এডিবির এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে সংস্থাটির কান্ট্রি ডিরেক্টর মনমোহন প্রকাশ বলেন, জীবিকা রক্ষায় জীবন বাঁচানোর জন্য সরকারের নীতিগুলো বাংলাদেশের অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধার প্রক্রিয়াকে প্রভাবিত করেছে, যা সাম্প্রতিক কঠিন সময়ে প্রশংসনীয়। কঠিন এ সময়ে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি বজায় রাখা বিশে^র কয়েকটি দেশের মধ্যে বাংলাদেশ একটি। বিচক্ষণ সামষ্টিক অর্থনৈতিক ব্যবস্থাপনা, প্রণোদনা এবং সামাজিক সুরক্ষা কর্মসূচির দক্ষ বাস্তবায়ন বাংলাদেশকে এ অবস্থায় টিকে থাকতে সাহায্য করেছে। তিনি আরও বলেন, কর্মসংস্থান সৃষ্টির জন্য অব্যাহত চেষ্টা, দ্রুত টিকা দেওয়া এবং অভ্যন্তরীণ সম্পদ সংগ্রহের উন্নতি পুনরুদ্ধারের প্রক্রিয়াকে আরও ত্বরান্বিত করবে।

মনমোহন প্রকাশ আরও বলেন, আর্থিক অন্তর্ভুক্তি এবং সামাজিক সুরক্ষা সম্প্রসারণের ক্ষেত্রে সাম্প্রতিক উদ্যোগগুলো প্রশংসাযোগ্য। ব্যবসায়ের প্রতিযোগিতা, বিদেশি বিনিয়োগ, রফতানি বৈচিত্র্য, দক্ষতা উন্নয়ন বেসরকারি খাতের বিনিয়োগকে উদ্দীপিত করবে এবং অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধারকে ত্বরান্বিত করবে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, এডিবি বাংলাদেশে তার কর্মসূচির অগ্রাধিকার পুনর্বিন্যাস করেছে। স্বাস্থ্য ও সামাজিক সুরক্ষা, দক্ষতা এবং গ্রামীণ উন্নয়ন, পানি ও স্যানিটেশন এবং অর্থ খাতের ওপর জোর দেওয়া হচ্ছে। ২০২০ সালের প্রথম দিকে কোভিড-১৯ মহামারি শুরু হওয়ার পর থেকে সামাজিক সুরক্ষা, কর্মসংস্থান, ভ্যাকসিন সংগ্রহ এবং জরুরি ব্যবস্থাপনার জন্য ১ দশমিক ৮ বিলিয়ন ডলার অনুমোদিত হয়েছে।

সময়ের আলো// এসএ


আরও সংবাদ   বিষয়:  অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি   এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক (এডিবি)  




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: কমলেশ রায়, আমিন মোহাম্মদ মিডিয়া কমিউনিকেশন লিমিটেড
এর পক্ষে প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ
নাসির ট্রেড সেন্টার, ৮৯, বীর উত্তম সি আর দত্ত সড়ক (সোনারগাঁও রোড), বাংলামোটর, ঢাকা।

ফোন : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৬৮-৭৪, ফ্যাক্স : +৮৮-০২-৯৬৩২৩৭৫। ই-মেইল : [email protected]